অজিদের ১৪০ বছরের রেকর্ড ছুঁল আফগানিস্তান

রূপসী বাংলা স্পোর্টস ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়া ছাড়া টেস্ট খেলিয়ে বাকি কোনও দেশ যেটা করে দেখাতে পারেনি, ঠিক সেটাই করে দেখালো আফগানিস্তান। চট্টগ্রামে বাংলাদেশকে সিরিজের একমাত্র টেস্টে পরাজিত করে আফগানিস্তান অজিদের ১৪০ বছরের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলল।

গতবছর টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়া আফগানিস্তান দীর্ঘতম ফরম্যাটে এই নিয়ে মোট ৩টি ম্যাচে মাঠে নামে। যার মধ্যে ২টি’তে জয় তুলে নেয় তারা। ভারতের বিরুদ্ধে নিজেদের প্রথম টেস্টে হারতে হয় আফগানদের। পরে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচে জয় তুলে নেয় আফগানিস্তান। এবার টেস্ট নেতৃত্ব হাতে পেয়েই বাংলাদেশ বিরুদ্ধে দলকে দুরন্ত জয় এনে দেন রশিদ খান।

এই নিরিখে সবথেকে কম টেস্টে মাঠে নেমে ২টি জয় তুলে নেওয়ার বিরল কৃতিত্ব অর্জন করে আফগানিস্তান। ১৮৭৯ সালে অস্ট্রেলিয়া তাদের তৃতীয় টেস্টে মাঠে নেমে দ্বিতীয় জয় পেয়েছিল। এবার আফগানিস্তান একাসনে বসে পড়ল অজিদের সঙ্গে।

টেস্টে দুটি জয় তুলে নিতে ইংল্যান্ডকে অপেক্ষা করতে হয় ৪টি ম্যাচ। অস্ট্রেলিয়া ও আফগানিস্তান যদি যুগ্মভাবে রেকর্ডের অধিকারী হয়, তবে দ্বিতীয় দ্রুততম দল হিসেবে ২টি টেস্ট জিতেছিল ইংল্যান্ড। পাকিস্তান ২টি টেস্ট জেতে ৯টি ম্যাচে মাঠে নেমে।

ভারত এই তালিকায় বহু পিছনে রয়েছে। ২টি টেস্ট জিততে ভারতকে খেলতে হয় ৩০টি ম্যাচ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১২টি, দক্ষিণ আফ্রিকা ১৩টি ও শ্রীলঙ্কা ২০টি টেস্টে ২টি জয় পেয়েছিল। এক্ষেত্রে ভারতের পিছনে রয়েছে জিম্বাবোয়ে, নিউজিল্যান্ড ও বাংলাদেশ। জিম্বাবোয়ে ৩১টি, নিউজিল্যান্ড ৫৫টি ও বাংলাদেশ ৬০টি টেস্ট খেলে ২টি ম্যাচ জিতেছে।

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্ট জয়ে একাধিক ব্যক্তিগত নজির গড়েন রশিদ খান। কনিষ্ঠ অধিনায়ক হিসাবে টেস্টে নেতৃত্ব দিতে নেমে দলকে জয় এনে দেন তিনি। ক্যাপ্টেন হিসেবে অভিষেক টেস্টে ব্যাট হাতে হাফ সেঞ্চুরি ও বল হাতে ম্যাচে ১০ উইকেট নেওয়া একমাত্র ক্রিকেটারে পরিণত হন রশিদ।

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম টেস্ট হারার সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশে এক লজ্জার রেকর্ড গড়ে। একমাত্র দল হিসেবে ১০টি পৃথক দেশের বিরুদ্ধে টেস্ট হারে বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *