‘অযোধ্যা মামলার রায়ে যুক্তি ছিল মুসলিমদের পক্ষে’

রূপসী বাংলা কলকাতা ডেস্ক: ভারতের অযোধ্যা মামলার রায়ে যুক্তি ছিল মুসলিম সম্প্রদায়ের পক্ষে। অথচ অযোধ্যায় মন্দির তৈরি নিয়ে আদেশ গিয়েছে হিন্দুদের পক্ষে। এমনটাই মন্তব্য করেছেন ভারতের সাবেক বিচারপতি একে গাঙ্গুলি।

অযোধ্যার রায় নিয়ে ইন্ডিয়া ইন্টারন্যাশনাল সেন্টারে সোমবার এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে তিনি বলেন, এটা ভারতের সুপ্রিম কোর্টের পক্ষে বলা অবাস্তব হয়েছে যে, ইসলামে মসজিদ গুরুত্বপূর্ণ নয়। আর নামাজ পড়া যায় খোলা জায়গায়। একজন উপাসকের বিশ্বাসকে চ্যালেঞ্জ করা যায় না বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। অযোধ্যা নিয়ে রায় দেওয়ার সময় সুপ্রিম কোর্ট সংখ্যালঘু মত গ্রহণ করেনি বলেও মন্তব্য করেছেন সাবেক এই বিচারপতি।

তিনি অযোধ্যা রায় প্রসঙ্গে আরও বলেন, মন্দির ধ্বংসের পরে বাবরি তৈরি হয়নি। যে গঠন হিন্দুরা তাদের বলে দাবি করছে, সেটা মসজিদ, মুসলিমরা কখনই তা পরিত্যাগ করেনি। হিন্দুরা অবৈধ উপায়ে তা দখল করে রেখেছিল। রায়ের এই অংশ গিয়েছে মুসলিমদের পক্ষে। এই আলোচনা সভায় হাজির ছিলেন আইনজীবী সঞ্জয় হেগড়ে এবং রাজনৈতিক ভাষ্যকার নীরা চান্দ্রোকে। এদিন অযোধ্যা মামলা নিয়ে বিচারপতির রায়ের অংশ পড়ে শোনান অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি একে গাঙ্গুলি। নীরা বলেন, সরকারের পক্ষ থেকেও যেন একটা তাড়া ছিল, মন্দির তৈরির জন্য কমিটি গঠনের জন্য। তিনি আরও প্রশ্ন করেন, যদি বাবর মসজিদ তৈরির জন্য মন্দির ধ্বংস করেই থাকেন, তাহলে কি আমাদেরও সেই কাজ আরও একবার করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *