ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যায় ১০৯ মার্কিন সেনা

ইরাকের মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় আহতের সংখ্যা ৫০ শতাংশ বেড়ে গেছে। ইরানি শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি হত্যার বদলা নিতে গত মাসের ওই হামলায় শতাধিক সেনার মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যা দেখা গেছে।
 
ইরান যখন আইন আল-আসাদ ঘাঁটিতে হামলা চালায়, তখন কোনো মার্কিন সেনা নিহত কিংবা তাৎক্ষণিকভাবে আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেনি। গত ৩ জানুয়ারি বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বের হওয়ার সময় ড্রোন হামলা চালিয়ে কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করে মার্কিন বাহিনী।
 
সোমবার রয়টার্স জানায়, টিবিআইতে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৪ থেকে বেড়ে ১০০ জনে পৌঁছাল। পেন্টাগন এক বিবৃতিতে বলছে, ১০৯ মার্কিন মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যায় আক্রান্ত হয়েছে। তবে তাদের মধ্যে ৭৬ জন চিকিৎসা শেষে দায়িত্বে ফিরেছেন।
 
এর আগে মার্কিন সেনাবাহিনী বলেছে, আসছে সপ্তাহে আহতের সংখ্যা আরও বাড়বে। কারণ সেনাদের শরীরে আক্রান্তের লক্ষণ স্পষ্ট হতে সময় লেগেছে।
 
মস্তিষ্কে আঘাতজনিত সমস্যা হলে মাথাব্যথা, মাথাঘোরা, আলোর প্রতি বিতৃষ্ণা ও বমি বমি ভাব দেখা দিতে পারে।
 
আহতদের সংখ্যা কমিয়ে বলা কিংবা তথ্য প্রকাশে কোনো বিলম্ব হয়নি বলে জানিয়েছে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে সন্দেহভাজন আহতের ঘটনায় কীভাবে অভ্যন্তরীণ প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে কিংবা অঙ্গহানিতে আহতদের মতোই তাদের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে কিনা তা নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে।
 
মার্কিন রিপাবলিকান সিনেটর জনি আরনস্ট বলেন, আমাদের আরও জবাব পেতে হবে। ইরাকে বিস্ফোরণে আহতদের নিরাপত্তা ও তাদের প্রতি যত্নশীল হতে পেন্টাগনের প্রতি আমি আহ্বান জানাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *