কাশ্মীরি পণ্ডিত আবেগ হাতিয়ার করেই কাঠুয়ায় প্রচার মোদী’র

রূপসী বাংলা কলকাতা ডেস্ক:প্রচারে গিয়ে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের আবেগকে হাতিয়ার করলেন প্রধানমন্ত্রী৷ আশ্বাস দিলেন, ক্ষমতায় ফিরলে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের দখল হয়ে যাওয়া জমি ফিরিয়ে দেবে বিজেপি৷

এদিন জম্মুর কাঠুয়াতে ভোটের প্রচার করেন গেরুয়া শিবিরের ‘পোস্টার বয়’ মোদী৷ জম্মুতেই দীর্ঘ দিনের বসবাস হিন্দু পণ্ডিতদের৷ তাই ভোটের বৈতরণী পারে হিন্দু ভোট একত্রিতকরা র কৌশল বিজেপির৷ এদিন কাঠুয়াতে প্রাচরে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের কথা টেনে কংগ্রেসকে তুলোধোনা করেন মোদী৷ বলেন, ‘‘কংগ্রেস ও বিভিন্ন সময়ে তাদের জোটের বন্ধুদের সংকীর্ণ রাজনৈতিক স্বার্থেই কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ঘর-বাড়ি ছাড়া হতে হয়েছে৷ তাদের উপর কোনও অত্যাচার চোখে পড়েনি নামদারদের৷’’ তাঁর প্রতিশ্রুতি ক্ষমতায় ফিরেই, ‘‘বিজেপি উপত্যকার পণ্ডিতদের অধিকার ও জমি ফিরিয়ে দেওয়ার পক্ষে৷ এই কাজ যত দ্রুত সম্ভব করা হবে৷’’

গত কয়েক দশক ধরে অশান্ত জম্মু-কাশ্মীর৷ গোলা বারুদের গন্ধই যেন সেখানে দস্তুর৷ সম্প্রতি ঘটেছে পুলওয়ামার

কংগ্রেস সহ বিরোধীদের খোঁচা দিয়ে তাঁর প্রশ্ন, ‘‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, এয়ার স্ট্রাইকের কথা শুনলে কেন ভয় পায় কংগ্রেস? এর পেছনে রয়েছে অতীত ইতিহাস৷ কারণ দেশের সবচেয়ে পুরনো দলটি কখনওই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ভালোভাবে লড়েনি৷’’ মুখে প্রাক্তন প্রদানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরুর নাম না নিলেও মোদী টেনে আনেন ১৯৬২ সালের ভারত চিন যুদ্ধের স্মৃতি৷

বারাণসীর বিজেপি প্রার্থী তথা দেশের বিদায়ী প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগ, ‘‘দেশভক্তি নিয়ে মোদী কিছু বললেই বিরোধীদের গালাগাল বলে মনে হয়। বিরোধীরা নানা সময়ে বিভিন্ন প্রশ্ন তোলে৷’’ তাঁর তুলনা, ‘‘জাতীয়তাবাদ নিয়ে নামদারের সঙ্গে চৌকিদারের এখানেই পার্থক্য৷’’

কয়েক মাস আগেই বিজেপি-পিডিপি জোট ভেঙেছে৷ গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধ সরব ফারুক ও ওমর আবদুল্লার ন্যাশানাল কনফারেন্স৷ দিন কয়েক আগেই কাশ্মীরেরদ জন্য পৃথক প্রদানমন্ত্রীর দাবি জানান ওমর আবদুল্লা৷ এদিন জম্মু-কাশ্মীরে প্রচারে গিয়ে ওমরের দাবির বিরুদ্ধে সোচ্চার হন নরেন্দ্র মোদী৷ তিনি বলেন, ‘‘জম্মু-কাশ্মীর থেকে ভারতকে আলাদা করার হুমকি দিচ্ছে ওরা৷ যা সফল হবে না। পাকিস্তান প্রসঙ্গে টেনে তাঁর হুশিয়ারি, আগে পরমাণু বোমা নিয়ে হুমকি দিত ইসলামাবাদ। এখন দেশভাগ নিয়ে সেই সুর বিরোধীদের৷ মনে রাখাতে হবে জম্মু-কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ।’’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *