যুক্তরাষ্ট্র

ছেলে-মেয়ে জামাতার দায়মুক্তি চান ট্রাম্প

শেষ মুহূর্তে নিজের ছেলেমেয়ে- ট্রাম্প জুনিয়র ও ইভাংকা, জামাতা ও হোয়াইট হাউসের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা জারেড কুশনার ও ব্যক্তিগত আইনজীবী রুডি গিলানিকে দায়মুক্তি দিয়ে ও ক্ষমা করে যেতে চান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ জন্য উপদেষ্টাদের সঙ্গে আলোচনাও করেছেন তিনি।

নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম হয়েছে এমন তথ্য ছড়ানোর কারিগর গিলানি নিজেও ক্ষমা পাওয়ার বিষয়টি নিয়ে গত সপ্তাহে ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলেছেন। এছাড়া ‘ঘুষের বিনিময়ে’ অপরাধীদের ক্ষমা করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে হোয়াইট হাউসের বিরুদ্ধে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে মার্কিন আইন মন্ত্রণালয়।

ফেডারেল কোর্ট এ সংক্রান্ত ডকুমেন্ট প্রকাশ করেছে। ‘ব্রাইবারি ফর পারডন’ নামের ওই তদন্ত সংশ্লিষ্ট নথিপত্র খুব বেশি সম্পাদনা করে সামান্য প্রকাশ করা হয়েছে। নিউইয়র্ক টাইমস, রয়টার্স।

নিজের ছেলেমেয়ে, জামাতা ও আইনজীবীকে ক্ষমা করা তথা দায়মুক্তি দিয়ে যাওয়া যায় কি না, বিষয়টি নিয়ে উপদেষ্টাদের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে অবহিত দু’জন ব্যক্তি ঘটনা সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আলোচনায় ট্রাম্প আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, পরবর্তী প্রেসিডেন্ট বাইডেনের বিচার বিভাগ ট্রাম্পকে উচিত শাস্তি দিতে পারে তার ছেলেমেয়েদের টার্গেট করার মাধ্যমে।

ট্রাম্পের বড় ছেলে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়রের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের নির্বাচনের সময় হিলারি ক্লিনটনের প্রচারণা সংক্রান্ত তথ্য রাশিয়াকে দিয়ে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অভিযোগে তদন্ত করছেন রবার্ট মুলার। তবে তাকে অভিযুক্ত করা হয়নি কখনও।

অন্যদিকে কুশনারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি নিজের নিরাপত্তা ছাড়ের জন্য বিদেশিদের সঙ্গে প্রেসিডেন্টের নামে যোগাযোগ করেছেন এবং ফেডারেল কর্তৃপক্ষকে ভুল তথ্য দিয়েছেন। এরিক ট্রাম্প ও ইভাংকার বিষয়ে ট্রাম্পের উদ্বেগ কী নিয়ে তা স্পষ্ট নয়।

অবশ্য তাদের বিরুদ্ধে ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের নামে কোটি ডলার করফাঁকির অভিযোগের তদন্ত করছেন ম্যানহাটন ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি। এই অভিযোগের কিছু অংশ অবশ্য খোদ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধেও রয়েছে। এছাড়া গিলানিকে কী অপরাধে ক্ষমা করা ও দায়মুক্তি দেয়া হবে সেটিও স্পষ্ট নয়।❐ 

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension