‘জাতির জনক’ গান্ধীজিকে ‘রাষ্ট্রপুত্র’ বলে নতুন বিতর্কে সাধ্বী প্রজ্ঞা

রূপসী বাংলা কলকাতা ডেস্ক: কয়েক মাস আগেই নাথুরাম গডসেকে ‘দেশপ্রেমিক’ বলে খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিলেন। নিজের সেই বক্তব্য থেকে এবারে সম্পূর্ণ ১৮০ ডিগ্রি সরে মহাত্মা গান্ধীকে ‘রাষ্ট্রপুত্র’ বলে এবার নতুন বিতর্কে বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞা।

গান্ধী সার্ধ শতবর্ষকে কেন্দ্র করে দেশ জুড়ে সংকল্প যাত্রার সূচনা করেছে গেরুয়া শিবির। তবে দলে থেকেও এই যাত্রায় সামিল হতে দেখা যায়নি সাধ্বী প্রজ্ঞাকে। আর এর মাঝেই মহাত্মা গান্ধীকে নিয়ে তাঁর এই মন্তব্যে শুরু হয়েছে প্রবল চর্চা। ‘জাতির জনক’ বলেই গান্ধীজিকে চেনে ভারতবাসী। তাই বিজেপি সাংসদের ‘রাষ্ট্রপুত্র’ আখ্যায় অবাক বিভিন্ন মহল।

ভোপাল ষ্টেশন পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই মন্তব্য করতে শোনা যায় সাধ্বী প্রজ্ঞাকে। সংকল্প যাত্রায় তিনি অংশগ্রহণ করছেন না কেন? এই প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে গিয়ে সাধ্বী প্রজ্ঞা বলেন, ”গান্ধী রাষ্ট্রপুত্র। আমি তাঁকে আদর্শ মনে করি তাই এর কোনও জবাব দেব না।” দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি আরও জানান, দেশের হয়ে যাঁরা কাজ করছেন, তাঁদের প্রত্যেককেই আমি আদর্শ বলে মনে করি। গান্ধীজির দেখানো পথেই আমি আজীবন চলতে চাই। দেশবাসীকে যারা পথ দেখিয়েছেন তাঁদের পথেই আমাদের চলা উচিত’।

উগ্র হিন্দুত্বের জন্য সুপরিচিত সাধ্বী প্রজ্ঞা চলতি বছরের লোকসভা নির্বাচনের আগে নতুন করে শিরোনামে উঠে আসেন। মহাত্মা গান্ধীর আততায়ী নাথুরাম গডসেকে ‘দেশপ্রেমিক’ বলে বসেছিলেন তিনি। এই নিয়ে দেশজুড়ে প্রবল সমালোচনার ঝড় ওঠে। সমালোচনার মুখে গেরুয়া শীর্ষ নেতৃত্বকে আসরে নামতে হয়। এই বক্তব্যের সঙ্গে দলের কোনও যোগ নেই বলে দাবি করে সাধ্বী প্রজ্ঞাকে শো কজও করে বিজেপি।

কিন্তু গান্ধী সার্ধ শতবর্ষের সংকল্প যাত্রায় অংশগ্রহণ না করেও সাধ্বী প্রজ্ঞার এই মন্তব্য নতুন বিতর্কের জন্ম দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *