নিউ ইয়র্কযুক্তরাষ্ট্র

জুনের শুরুতেই খুলছে নিউ ইয়র্ক

করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত ভাড়াটিয়াদের বাড়িভাড়া থেকে সাময়িক নিষ্কৃতি দিতে একটি আইন পাশ করেছে নিউ ইয়র্ক স্টেট আইন সভা। বৃহস্পতিবার পাশ হওয়া বিলটিতে জরুরি ভাড়া নিষ্কৃতির বিধান রাখা হয়েছে। ইমার্জেন্সী রেন্ট রিলিফ অ্যাক্ট ২০২০ নামের বিলটিতে ১০ কোটি ডলার অর্থ বাড়িওয়ালাদের দেওয়ার জন্য প্রস্তাব রাখা হয়েছে।

করোনায় বিপর্যস্ত ও লকডাউনে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক রাজ্য জুনের শুরুতেই আংশিক খুলে দেওয়া হচ্ছে।

সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাসিও আশা প্রকাশ করেছেন,খুলে দেওয়ার প্রথমদিনে নিউ ইয়র্ক শহরেই ২ লাখ থেকে ৪ লাখ মানুষ কাজে যোগ দেবেন বলে। প্রথম ধাপে নির্মাণ ও পোশাক সংশ্লিষ্ট খাত খুলে দেওয়া হলেও বার-রেস্তোরা আওতার বাইরে থাকবে।

কর্মস্থলে শ্রমিকদের মাস্ক ব্যবহার, সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্য স্ক্রিনিং বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে নিউ ইয়র্ক। ২৯ মে নিউ ইয়র্ক সময় বিকাল ৪টা পর্যন্ত রাজ্যটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৭৩ হাজার ৩৮৭ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ২৯ হাজার ৬০৫ জন।

তারপরও স্বাভাবিক হওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে নিউ ইয়র্ক।

বৃহস্পতিবার সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাসিও রিওপেনের জন্য বিধিনিষেধের প্রাথমিক রূপরেখা তুলে ধরেন। নিউ ইয়র্ক সিটি সীমিত আকারে খুলে দেওয়ার নির্দিষ্ট কোনও দিনতারিখ উল্লেখ না করে তিনি বলেন, প্রথম ধাপের রিওপেন জুনের প্রথম বা দ্বিতীয় সপ্তাহে শুরু হবে।

প্রথম ধাপে যে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় চালু করার অনুমতি দেওয়া হবে, তার মধ্যে রয়েছে নির্মাণ, পোশাক এবং ইলেকট্রনিক্স আইটেম উৎপাদন, স্টোর ও কারখানার জন্য পাইকারি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান।

প্রথম ধাপে রেস্তোঁরা ও বার খোলা যাবে না। এগুলো রিওপেনের সর্বশেষ ধাপে অন্তর্ভুক্ত হবে।

প্রথম ধাপে অন্তর্ভুক্ত সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কর্মচারীদের চাকরির জন্য একেবারে প্রয়োজনীয় না হলে ছয় ফুট দূরে থাকা নিশ্চিত করতে হবে। নিয়োগকর্তাদের অবশ্যই কর্মীদের বিনামূল্যে মুখের আচ্ছাদন ও পিপিই সরবরাহ করতে হবে।

যৌথভাবে ব্যবহৃত জায়গা নিয়মিত পরিষ্কার রাখতে হবে এবং শ্রমিকদের জন্য স্বাস্থ্য স্ক্রিনিং বাধ্যতামূলক করতে হবে ব্যবসার মালিকদের।

মেয়র জানান, নিউইয়র্কের প্রাইভেট সেক্টরে করোনার কারণে কর্মহীন হয়েছেন ৮ লাখ ৮৫ হাজারের বেশি মানুষ। প্রথম ধাপে ২ লাখ থেকে ৪ লাখ কর্মী কাজে ফিরে আসবেন।

এদিকে করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত ভাড়াটিয়াদের বাড়িভাড়া থেকে সাময়িক নিষ্কৃতি দিতে একটি আইন পাশ করেছে নিউ ইয়র্ক স্টেট আইন সভা।

বৃহস্পতিবার পাশ হওয়া বিলটিতে জরুরি ভাড়া নিষ্কৃতির বিধান রাখা হয়েছে।

ইমার্জেন্সী রেন্ট রিলিফ অ্যাক্ট ২০২০ নামের বিলটিতে ১০ কোটি ডলার অর্থ বাড়িওয়ালাদের দেওয়ার জন্য প্রস্তাব রাখা হয়েছে।

এই অর্থ সেসব বাড়িওয়ালাদের দেওয়া হবে, যাদের বাড়ির ভাড়াটিয়ারা করোনার কারণে চাকুরী হারিয়েছেন।

এ অর্থ যোগান দেওয়া হচ্ছে ফেডারেল সরকারের ২ লাখ কোটি ডলার করোনা বাজেটের আওতায় পাওয়া নিউ ইয়র্ক স্টেটের অংশ থেকে। ⛘

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension