জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের আলোচনা সভাঃ জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি

রূপসী বাংলা প্রবাস ডেস্ক: ১৯৭৫ সালের ৩-রা নভেম্বর বাঙালী জাতির ইতিহাসে আরেকটি কলঙ্কিত দিন। এই দিনে মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী জাতীয় চার নেতা তাজউদ্দিন আহমেদ, সৈয়দ নজরুল ইসলাম, এ এইচ এম কামরুজ্জামান ও ক্যাপ্টেন মনসুর আলীকে কারাগারের প্রকোষ্ঠে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয়। দিনটি যথাযত মর্যাদায় পালনের জন্য নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের উদ্দ্যোগে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয় গত ৫ই নভেম্বর, মঙ্গলবার নিউইয়র্ক জ্যাকসন হাইটসের খাবার বাড়ী চাইনিজ রেস্টুরেন্টে। নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুর রহমান মিয়ার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বীকৃতি বড়ুয়ার যৌথ পরিচালনায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত সকলে এক মিনিট নীরবে দাড়িয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানান। দোয়া পরিচালনা করেন নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মনির হোসেন। এরপর স্বাগতিক বক্ত্যব রাখেন সংগঠনের প্রচার সম্পাদক ইসমাইল হোসেন স্বপন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন ইতিহাসের এই নিষ্ঠুর হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় শুধু বাংলাদেশের মানুষই নয়, স্তম্ভিত হয়েছিল সমগ্র বিশ্ব। বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার হত্যাকাণ্ড ছিল একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা। হত্যাকারী এবং তাদের দোসররা চেয়েছিল পাকিস্তান ভাঙ্গার প্রতিশোধ নিতে, রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ ও সীমাহীন ত্যাগের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জনকারী দেশটিকে হত্যা ও ষড়যন্ত্রের আবর্তে নিক্ষেপ করতে। তাদের উদ্দেশ্য ছিল পুনর্গঠন ও গণতান্ত্রিকতার পথ থেকে সদ্য স্বাধীন দেশটিকে বিচ্যুত করা এবং বাংলাদেশের মধ্যে থেকে একটি মিনি পাকিস্তান সৃষ্টি করা। এখানেই শেষ হয়নি স্বাধীনতার শত্রুদের ষড়যন্ত্র। ’৭৫-এর পর থেকে বছরের পর বছর বঙ্গবন্ধুর নাম-নিশানা মুছে ফেলার চেষ্টা চলে।

বক্তারা আরো বলেন জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ এগিয়ে চলেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে সম্প্রতি যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন দেশে বিদেশে তা প্রশংসিত হচ্ছে। নেত্রী জানেন এবং বুঝেন বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে, দুর্নীতিবাজ যারা হাজার হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি করে দেশের অর্থ বিদেশে পাচার করছে তাদের বিচারের কাঠগড়ায় দাড় করাতে হবে এবং সৎ ও যোগ্য কর্মী ও নেতাদের নেতৃত্ব দেবার সুযোগ করে দিতে হবে। আমরা প্রবাস থেকে নেত্রীর এই সাহসী পদক্ষেপকে স্বাগত জানাই এবং একটি দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সর্বদা প্রস্তুত। যেদিন বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হবে, সেদিন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা আত্মা শান্তি পাবে। নেতৃবৃন্দ জননেত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সহসভাপতি যথাক্রমে শেখ আতিকুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা হিরু ভুঁইয়া ও বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মনির হোসেন, জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি হাজী আব্দুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব চৌধুরী চান্দু, নিউইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ ভুঁইয়া পলাশ ও সাংগঠনিক সম্পাদক ফিরোজ আহমদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ চট্টগ্রাম দক্ষিণ শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিন,,আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হোসেন, প্রমুখ। সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ ফখর উদ্দিন, জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার সহসভাপতি হারিস উদ্দিন আহমেদ, মোঃ সেলিম, রিয়েল এস্টেট ব্যাবসায়ী সাহদাত ভুঁইয়া, সামশুল হক, মোঃ নবী হোসেন, সুজন, প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *