জেসী’স কিচেন

জেসমিন রাশিদ জেসী

 

 

 

রূপসী বাংলা ডেস্ক:  শীত এলে বাঙালিদের ঘরে ঘরে পিঠা খাওয়ার ধুম পরে যায়। এখন প্রায় সব ঋতুতেই বিশেষ বিশেষ পিঠা খাওয়ার রেওয়াজ রয়েছে। তবে শীতের সকালে কিংবা সন্ধ্যার ঠাণ্ডা বাতাসে গরম গরম পিঠা খাওয়ার মজাই আলাদা। পিঠা ছাড়া শীত!!!

 

 

 

গোলাপ পিঠা:-

উপকরণ: ময়দা – ২ কাপ, লিকুইড দুধ /পানি – ১ কাপ বা প্রয়োজন মত, ডিম – ১ টি, ঘি – ৩ টেবিল চামচ,  লবণ – স্বাদ মত,  তেল – ভাজার জন্য।

সিরা:  চিনি – ১ কাপ +পানি – ১ কাপ,  এলাচ – ১ টি,  তেজপাতা – ১ টি। পাতলা সিরা হবে।

প্রণালি: প্যানে দুধ ও লবণ দিয়ে গরম করতে হবে। ফুটে উঠলে এতে ময়দা দিয়ে খামির করতে হবে। খামিরটা হালকা গরম থাকতেই ডিম মেশাতে হবে। হাতে অল্প অল্প ঘি নিয়ে খুব ভালো ভাবে ময়ান দিয়ে নরম ডো বানিয়ে এর থেকে কিছুটা নিয়ে রুটির থেকে একটু মোটা রুটি বানাতে হবে। পরে গ্লাস বা গোল কোনো কাটার দিয়ে কয়েকটি ছোট ছোট লুচির মতো করে কেটে নিতে হবে। ২ বা ৩ টা রুটি এক করে তিন দিকে কেটে একটি একটি করে পাপড়ি মুড়িয়ে নিতে হবে। ফুলগুলো বেশি মোটা হলে সহজে ভাজা হবে না এবং খেতেও কাঁচা লাগবে। পিঠা গুলো হালকা আঁচে ভাজতে হবে। ভাজা হলে সরাসরি সিরায় দিয়ে ৪ – ৫ মিনিট পর তুলে নিতে হবে।

 

মুগ পাকন পিঠা:-

উপকরণ: চালের গুঁড়া – ১ কাপ,  ময়দা – ১ /৪ কাপ,  মুগ ডাল বাটা – ১ কাপ, বেকিং পাওডার – ১ /২ চা চামচ,  লিকুইড দুধ – ২ কাপ, ডিম – ১ বা ২ টা,  ঘি – ২ টেবিল চামচ,  লবণ -১/২ চা চামচ ।

সিরা: পানি – ২ কাপ,  চিনি – ১ কাপ,  এলাচ – ২ টি,  দারুচিনি – ২ টুকরা = এক সাথে জ্বাল দিয়ে পাতলা সিরা করতে হবে।

প্রণালি: মুগডাল ভেজে, সিদ্ধ করে বেটে নিতে হবে। চুলায় দুধ বসিয়ে ফুটে উঠলে এতে লবণ, চালের গুঁড়া ও ময়দা দিয়ে কাই করে চুলা থেকে নামিয়ে ৫ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে। (দুধ কম বা বেশি লাগতে পারে) এই কাই এর সাথে মুগডাল বাটা মিশিয়ে অল্প অল্প করে ডিম ও ঘি মিশিয়ে নরম একটা ডো করতে হবে। আধা সেন্টিমিটার পুরু করে রুটি বেলে পছন্দ মত ডিজাইন করে হালকা আঁচে ডুবো তেলে ভেজে একটু ঠাণ্ডা করে কুসুম গরম সিরাতে ৫ মিনিট রেখে তুলে নিতে হবে।

 

পাটিসাপটা পিঠা:-

উপকরণ: চালের গুঁড়া- ৩ /৪ কাপ, ময়দা- ১ /৪ কাপ,  পানি – পরিমাণ মত,  লবণ – ১ /৪ চা চামচ,  খেজুরের গুড় – ২ – ৩ টেবিল চামচ ।

ক্ষীরসা: লিকুইড দুধ- ১ লিটার, গুড়/চিনি – পছন্দ মত,  চালের গুঁড়া – ২ টেবিল চামচ, মিহি নারকেল বাটা – ১ টেবিল চামচ ।

প্রণালি: দুধ জ্বাল দিয়ে অর্ধেক করে এতে চিনি, নারকেল বাটা মেশাতে হবে। কিছুটা ঘন হয়ে এলে এতে চালের গুঁড়া অল্প পানিতে গুলে দুধে মিশিয়ে ঘন ঘন নেড়ে ক্ষীরসা তৈরি করতে হবে। চালের গুঁড়া, ময়দা, লবণ, গুড় ও পানি একসাথে মিশিয়ে খুব ঘন না আবার পাতলাও না এমন একটা গোলা তৈরি করতে হবে। প্যান গরম করে তেল ব্রাশ করে ডালের চামচের এক চামচ গোলা প্যানে দিয়ে ঘুরিয়ে রুটির মত করতে হবে। এই রুটির এক পাশে ১ টেবিল চামচ ক্ষীরসা দিয়ে পাটির মত মুড়িয়ে নিলেই হয়ে যাবে সুন্দর সুস্বাদু পাটিসাপটা পিঠা।

 

লবঙ্গ লতিকা পিঠা:-

উপকরণ: ময়দা – ২ কাপ,  লবণ – ১ /৪ চা চামচ,  তেল /ঘি – ১ টেবিল চামচ,  লবঙ্গ – ১০ – ১২ টা, পানি – পরিমাণ মত,  নারকেল কোরানো – ১ – ১ ১/২ কাপ,  চিনি বা গুড় – ১ /২ কাপ,  এলাচ গুঁড়া – ১ চিমটি,  তেল – ভাজার জন্য ।

প্রণালি: নারকেল, চিনি ও এলাচ গুঁড়া একসাথে জ্বাল দিয়ে পুর তৈরি করতে হবে। ময়দা, লবণ, তেল পরিমাণ মত পানি দিয়ে মেখে নরম একটা খামির বানাতে হবে। ছোট ছোট কয়েকটা রুটি বানিয়ে মাঝে নারকেলের পুর দিয়ে পরোটার ভাজের মত করে ভাজ দিয়ে ফুলের মত করে মাঝে একটা লবঙ্গ আটকে দিতে হবে। এবার ডুবো তেলে হালকা বাদামি করে ভেজে কুসুম গরম সিরায় ২-৩ মিনিট চুবিয়ে তুলে নিতে হবে।

 

***মজাদার সব খাবার পেতে ভিজিট করুন***

https://foodpeon.com/kitchen/4018

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *