যুক্তরাষ্ট্র

ট্রাম্পের সভায় তুলে ফেলা হয় সতর্কতার স্টিকার

করোনার এই মহামারীর সময় ট্রাম্পের প্রচারসভায় ভিড় বাড়াতে গা ঘেঁষাঘেঁষি করে লোক বসানো হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং তার নির্বাচনী প্রচারের দায়িত্বে থাকা সংস্থার বিরুদ্ধে এবার এমনই অভিযোগ তুলেছে দেশটির
অনেক সংবাদমাধ্যম।

ওকলাহোমার টালসায় ব্যাংক অব ওকলাহোমা সেন্টারে গত ২০ জুন প্রথম নির্বাচনী সভা করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ১৯ হাজার আসনের ওই স্টেডিয়ামে একটি করে আসন ছেড়ে লোকজনকে বসানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

এ জন্য একটি আসনের পর চেয়ারগুলোতে লাগিয়ে দেয়া হয় ‘ডু নট সিট হিয়ার প্লিজ’ স্টিকারও। কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারের দায়িত্বে থাকা সংস্থা স্টিকারগুলো তুলে ফেলে বলে জানিয়েছে সংবাদপত্রগুলো।

অভিযোগ প্রমাণ করতে সংবাদপত্রগুলো একটি ভিডিও সামনে এনেছে। তাতে দেখা গেছে, প্রত্যেক সারিতে নেমে চেয়ারের ওপর থেকে স্টিকারগুলো তুলে ফেলছেন দুই স্বেচ্ছাসেবী।

ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারের দায়িত্বে থাকা সংস্থার নির্দেশেই তারা সেগুলো তুলে ফেলেন বলে অভিযোগ দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের।

এমনকি প্রচার সভায় সামাজিক দূরত্ববিধি নিয়ে কোনও স্টিকার বা পোস্টার থাকুক, প্রচারের দায়িত্বে থাকা সংস্থা তাও চায় নি বলে বিলবোর্ড ম্যাগাজিনকে জানিয়েছেন ব্যাংক অব ওকলাহোমা সেন্টার যে সংস্থার অধীনে, তার সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডাগ থর্নটন।

এ নিয়ে হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি। ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারের দায়িত্বে থাকা সংস্থাও এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করে নি।

যে সময় ট্রাম্প ওকলাহোমায় সভা করতে গিয়েছিলেন, সেই সময় সেখানে করোনার প্রকোপ সবচেয়ে বেশি ছিল।

তা সত্ত্বেও জনসমাবেশ করায় স্থানীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের তোপের মুখে পড়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই প্রচারসভা থেকে ফিরে ট্রাম্পের ৮ জনের শরীরে কোভিড-১৯ ভাইরাস ধরা পড়ে বলে জানা গেছে। আরও বেশ কয়েক জনকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

ওয়াশিংটন পোস্ট

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension