বিনোদন

তাপসী পান্নুর কথা

শিখ সম্প্রদায় বছরে দশটি গরুপরব পালন করেন। প্রত্যেক পরবে দশ জন গুরুর এক একজনকে সম্মান জানানো হয়। অখণ্ড পাঠ, শোভাযাত্রা, পংক্তিভোজন, করসেবা সব গুরুপরবে করা হয়।

ওই গুরুপরবে ভারতের অভিনয় শিল্পী তাপসী পান্নুর সঙ্গে ঘটে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। ভিড়ের সময় তার পেছনে স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দেয় এক ব্যক্তি।

কারিনা কাপুর খানের রেডিয়ো টক শো ‘ওয়াট উইমেন ওয়ান্ট’-এ তথ্য নিজেই জানান তাপসী।

অভিনেত্রী তাপসী বলেন, ‘গুরুপরবের সময় আমরা গুরুদ্বারে যেতাম। তার ঠিক পাশের একটি খাবার স্টল ছিল যেখানে বাইরে থেকে আসা দর্শনার্থীদের খাবার দেওয়া হতো। জায়গাটিতে এতটাই ভিড় থাকত যে সব সময় ধাক্কাধাক্কি হতো। এর আগেও সেখানে আমার অদ্ভুত কয়েকটি অভিজ্ঞতা হয়েছিল। আমি জানতাম এ রকম ভিড়ে গেলে আবারও খারাপ কিছু একটা হতে পারে। সেভাবেই নিজেকে মানসিকভাবে প্রস্তুত রেখেছিলাম।’

তাপসী আরও বলেন, ‘আচমকা এক ব্যক্তি আমাকে পিছন দিক থেকে খারাপভাবে স্পর্শ করার চেষ্টা করে। আমি বুঝলাম আবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে। তৎক্ষণাৎ আমি ওই ব্যক্তির আঙুল ধরে তা মটকে দিই এবং খুব দ্রুত সেই জায়গা ছেড়ে বেরিয়ে আসি।’

কে এই তাপসী?
তাপসী ১৯৮৭ সালের ১ আগস্ট ভারতের নয়াদিল্লির একটি শিখ পরিবারে জন্ম নেন। তিনি পাঞ্জাবি বংশোদ্ভূত। দিল্লির অশোক বিহারের মাতা জাই কৌর পাবলিক স্কুল থেকে পাস করে তিনি একই এলাকার গুরু টেগ বাহাদুর ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি থেকে কম্পিউটার বিজ্ঞান প্রকৌশল বিষয়ে স্নাতক সম্পন্ন করেন। পরে তিনি সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ শুরু করেন।

সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার থেকে অভিনেত্রী হওয়ার গল্প
চ্যানেল ভি আয়োজিত গেট গরর্জিয়াস প্রতিভা অনুষ্ঠানের অডিশনে নির্বাচিত হওয়ার পর তাপসী পেশাদার মডেল হিসেবে কাজ শুরু করেন, যা পরিণামে তাকে অভিনেত্রী হবার সুযোগ করে দেয়। তিনি ২০০৮ সালের ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে ‘প্যান্টালুন ফেমিনা মিস ফ্রেস ফেস’ ও ‘সাফি ফেমিনা মিস বিউটিফুল স্কিন’সহ একাধিক খেতাব লাভ করেন।

একজন মডেল হিসেবে, তিনি রিলায়েন্স ট্রেন্ডস, রেড এফএম ৯৩.৫, ইউনিস্টাইল ইমেজ, কোকাকোলা, মোটোরোলা, প্যান্টালুন্স, পিভিআর সিনেমাস, স্টান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, ডাবর, এয়ারটেল, টাটা ডোকোমো, ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিল, হাভেল্স এবং ভার্ডম্যান ইত্যাদি ব্যান্ডের সাথে চুক্তিবদ্ধ হন। কয়েক বছর পর চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করেন।

তাপসী ২০১০ সালে কোবেলামুদি রাঘবেন্দ্র রাও পরিচালিত ঝুম্মন্দি নাদাম প্রণয়-সঙ্গীতধর্মী চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিষিক্ত হন। এতে তিনি একজন যুক্তরাষ্ট্র-ভিত্তিক ধনকুবের কন্যার চরিত্রে অভিনয় করেন, যিনি ঐতিহ্যগত তেলেগু সঙ্গীতের ওপর গবেষণা করতে ভারত আসেন।

পরবর্তীতে ধনুষের বিপরীতে আদুকালাম (২০১১) চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তামিল চলচ্চিত্রে তার অভিষেক ঘটে। এতে তিনি একজন অ্যাংলো-ভারতীয় মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন, যিনি একজন গ্রামীণ ছেলের প্রেমে পড়েন।

চলচ্চিত্রটি মাদুরাইয়ের মোরগলড়াইয়ের পটভূমিতে নির্মিত। চলচ্চিত্রটি ৫৮তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে ছয়টি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে।

২০১১ সালে বিষ্ণু মঞ্চুর বিপরীতে ভাস্তাডু না রাজুর (২০১১) মাধ্যমে তেলুগু চলচ্চিত্রে পুনরায় অভিনয় করেন। পরবর্তীতে মাম্মুটি ও নাদিয়া মইড়ুর বিপরীতে ডাবলস (২০১১) চলচ্চিত্রের মাধ্যমে মালয়ালম চলচ্চিত্র শিল্পে তার অভিষেক ঘটে।❐

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension