ত্যাগী নেতাকর্মীদের কোণঠাসা করে দল ভারি করার দরকার নেই:কাদের

রূপসী বাংলা নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বসন্তের কোকিল দলে টেনে ত্যাগী নেতাকর্মীদের কোণঠাসা করে দল ভারি করার দরকার নেই। বিলবোর্ডে ছবি ও স্লোগান দিয়ে, পোস্টার লাগিয়ে নেতা হওয়া যায় না।’

সোমবার (২ ডিসেম্বর) দুপুর আড়াইটায় পটুয়াখালী শহরের শহীদ আলাউদ্দিন শিশু পার্কে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কর্মীদের কোণঠাসা করে আওয়ামী লীগ বাঁচবে না। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে, মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে, গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। আর আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হলে দলের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের বাঁচাতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত ৪৪ বছরে দেশের সবচেয়ে সৎ, দক্ষ ও জনপ্রিয় রাজনীতিক হলেন শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের উন্নয়নকে বাঁচাতে হলে শেখ হাসিনাকে বারবার ক্ষমতায় ফিরিয়ে আনতে হবে। উন্নয়ন ও অর্জনে শেখ হাসিনার কোনও বিকল্প নেই।’

কাদের বলেন, ‘নেতারা ঘরের মধ্যে ঘর করে মশারির মধ্যে মশারি, আত্মীয়করণ করে চৌদ্দপুরুষকে নিয়ে পকেট কমিটি করে! পকেট কমিটি চলবে না, কমিটি করতে গিয়ে খারাপ মানুষদের দলে টানা যাবে না। অনেক ত্যাগীরা কমিটিতে জায়গা পায়নি তাদের জায়গা করে দিতে হবে।’

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পটুয়াখালী-১ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. শাহজাহান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ, আবদুর রহমান, তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আফজাল হোসেন, উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সদস্য গোলাম রাব্বানী চিনু প্রমুখ।

এ ছাড়াও দ্বিতীয় অধিবেশনে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক গোলাম সরোয়ারকে এক নম্বর যুগ্ম-সম্পাদক ও বাউফল উপজেলা পৌর মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলকে দুই নম্বর যুগ্ম-সম্পাদক করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *