নিউইয়র্কের বাফেলোতে বাংলাদেশ কনস্যুলেটের সেবা কার্যক্রম

রূপসী বাংলা প্রবাস ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক রাজ্যের বাফেলো শহরে কনস্যুলার সেবা দিয়েছে নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেট। নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসার নেতৃত্বে গত ২৮ ও ২৯ নভেম্বর এই সেবা কার্যক্রম পরিচালিত হয়। বাংলাদেশ সোসাইটি অব বাফেলো নিউইয়র্ক ইন্ক-এর সহযোগিতায় কনস্যুলার ক্যাম্পে প্রবাসীদের উপস্থিতি ছিল বিশেষভাবে লক্ষণীয়।

নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেটের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, থ্যাঙ্কসগিভিং ডে-তে ফেডারেল ছুটি থাকায় বাফেলো এবং পার্শ্ববর্তী শহরগুলোতে বসবাসরত বাংলাদেশি-আমেরিকানরা তাদের প্রয়োজনীয় কনস্যুলার সেবা গ্রহণ করতে পেরে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এখানে উল্লেখ্য, বাফেলো শহরে বাংলাদেশি-আমেরিকান নাগরিকের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। দুদিনব্যাপী এই কনস্যুলার ক্যাম্পে প্রায় ৫০০ জন বাংলাদেশি-আমেরিকান নাগরিক বিভিন্ন ধরনের কনস্যুলার সেবা গ্রহণ করেন। সেবাসমূহের মধ্যে ছিল মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট, নো ভিসা রিকোয়ার্ড, এন্ডোর্সমেন্ট, পাওয়ার অব অ্যাটর্নি, দ্বৈত নাগরিকত্ব সার্টিফিকেট, ট্রাভেল ডকুমেন্ট, জন্ম সনদ, এলাইভ সার্টিফিকেটসহ অন্যান্য।

প্রবাসী নেতারা সরকারি ছুটির দিন থাকা সত্ত্বেও বাফেলোতে কনস্যুলার ক্যাম্প পরিচালনার জন্য কনসাল জেনারেলসহ কনস্যুলেটের অন্যান কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা প্রবাসী সেবাপ্রার্থীসহ আয়োজকদের কনস্যুলার সেবা পরিচালনায় সহযোগিতা প্রদানের জন্য ধন্যবাদ জানান। এসময় তিনি কনস্যুলার সেবা ও কল্যাণ নিশ্চিতকরণে দৃঢ় প্রতিজ্ঞার কথা উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, প্রবাসে বসবাসরত বাংলাদেশি-আমেরিকানরা বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রূপকল্প ২০২১ ও রূপকল্প ২০৪১-এর বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সম্মিলিতভাবে কাজ করার জন্য তিনি বাংলাদেশি-আমেরিকান নাগরিকদের আহবান জানান।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে বাফেলো বিশ্ববিদ্যালয়কে সম্পৃক্ত করে ‘মুজিব বর্ষে’ সেমিনার অনুষ্ঠান আয়োজন করার জন্য বাফেলোর বাংলাদেশি-আমেরিকান নাগরিকদের আহবান জানান কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা।

থ্যাঙ্কসগিভিং ডে উপলক্ষে প্রবাসীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন সাদিয়া ফয়জুননেসা। এসময় তিনি বাংলাদেশি-আমেরিকান ভবিষ্যত প্রজন্মকে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী ও সমৃদ্ধ সংস্কৃতির সাথে পরিচিত করার জন্য অভিভাবকদের অনুরোধ জানান। নতুন প্রজন্মকে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি ক্রীড়া ও সংস্কৃতি অনুশীলনের মাধ্যমে নিয়োজিত রেখে মাদক, উগ্রবাদ ও অন্যান্য অপশক্তির ভয়াবহ ছোবলের হাত থেকে রক্ষার লক্ষ্যে সচেতন থাকার জন্য অভিভাবকদের বিশেষভাবে অনুরোধ জানান কনসাল জেনারেল।

কনস্যুলেটের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান চৌধুরী সুলতানা পারভীন, পাসপোর্ট ও ভিসা উইং-এর প্রথম সচিব মোঃ শামীম হোসেন ছাড়াও অন্যান্য কর্মকর্তারা সেবা কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *