নিউইয়র্ক স্টেট এসেম্বলীতে বাংলাদেশী প্রার্থী জয় চৌধুরীর সংবাদ সম্মেলন।

রূপসী বাংলা প্রবাস ডেস্ক: বর্ণ বৈষম্যের উর্ধে থেকে বাংলাদেশীসহ সকল ইমিগ্র্যান্ট কমিউনিটির অধিকার আদায়ে কাজ করতে চান নিউইয়র্ক স্টেট এসেম্বলীতে বাংলাদেশী প্রার্থী জয় চৌধুরী। যুক্তরাষ্ট্রের মূলধারার ইয়াং ডেমোক্রেট নেতা জয় চৌধুরী বলেন, নিউইয়র্কে বহু বাংলাদেশীর বসবাস। যুক্তরাষ্ট্রে মূলধারার নির্বাচনে বাংলাদেশীদের ভোট এখন বড় ফ্যাক্টর। বাংলাদেশীরা ঐক্যবদ্ধ হলে নিজেদের প্রার্থীকে নির্বাচিত করা সম্ভব। বিশেষ করে আমার নির্বাচনী এলাকা জ্যাকসন হাইটস, এলমহার্ষ্ট ও উডসাইড এখন মিনি বাংলাদেশ। এখানে ব্যবসা বানিজ্যে বাংলাদেশীরা এগিয়ে। এই এলাকায় ইমিগ্র্যান্টদের অধিকার আদায়ে প্রয়োজন নির্বাচিত প্রতিনিধি।

আমি নির্বাচিত হলে বাংলাদেশীসহ সকল ইমিগ্র্যান্ট কমিউনিটির অধিকার আদায়ে কাজ করবো। জয় চৌধুরি বলেন, আমি আমেরিকান সেনাবাহিনীতে কাজ করেছি। সিটি কাউন্সিল অফিসে কাজ করেছি। একজন নির্বাচিত প্রতিনিধির কি কাজ সেটা কাছ থেকে দেখেছি। নির্বাচিত হলে আমাদের অধিকার ও মর্যাদা রক্ষায় কাজ করবো। বৃহস্প্রতিবার নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস কাবাব কিং পার্টি হলে বাংলাদেশী প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাথে সংবাদ সম্মেলনে জয় চৌধুরী এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশী কমিউনিটি নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সোসাইটি নেতা ফখরুল আলম, কাজী আজহারুল হক মিলন, আলী ইমাম শিকদার, ফারুক হোসেন মজুমদার, মোহাম্মদ আলী, আবু তালেব চান্দু, আবু নাসের, আহসান হাবিব, আবুল কাশেম, অধ্যাপিকা হোসনেয়ারা, মনিকা রায় চৌধুরী, মূলধারার নেতা মিলন রহমান, আল আমিন রাসেল ও আহনাফ আলম।


বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সেক্রেটারি ফখরুল আলম বলেন, আমরা শুধু এদেশের মূলধারার নির্বাচনে শুধু চাদা দিয়ে গেলাম। কিন্তু নিজেদের প্রাপ্য অধিকার ও মর্যাদা পেলাম না। এখন সময় এসেছে নিজেদের মর্যাদা ও অধিকার আদায়ের। জয় চৌধুরীর সাথে রয়েছে এশিয়ান কমিউনিটির ইয়াং জেনারেশন। সকলে ঐক্যবদ্ধ হলে বিজয় আমাদের সুনিশ্চিত। আগামী ২১ নভেম্বর জ্যাকসন হাইটস বেলোজিনো পার্টি হলে জয় চৌধুরীর সমর্থনে ফান্ড রেইজিং অনুষ্ঠিত হবে। ফান্ড রেইজিং ডিনারে নিউইয়র্কে বসবাসরত সকল বাংলাদেশী কমিউনিটিকে অংশ নেয়ার আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *