‘ন ডরাই’ চলচ্চিত্রর বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ

সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ‘ন ডরাই’ চলচ্চিত্রটির বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ তোলা হয়েছে। চলচিত্রটির সেন্সর বাতিল ও প্রদর্শনী বন্ধে একটি আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। আজ বুধবার ৪ ডিসেম্বর সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. হুজ্জাতুল ইসলাম জনস্বার্থে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এ নোটিশ প্রেরণ করেন।

 

আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, আইন মন্ত্রণালয় সচিব, ছবিটির প্রযোজক মাহবুব রহমান, পরিচালক তানিম রহমান অংশু ও চিত্রনাট্যকার শ্যামল সেনগুপ্ত বরাবর চলচ্চিত্রটি বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।

 

নোটিশে বলা হয়েছে, এই চলচ্চিত্রে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর স্ত্রী হযরত আয়শা (রা.) সম্পর্কে বর্ণনা তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়াও চলচ্চিত্রের কিছু অংশ অশ্লীল ও অনৈতিক। তাই এসব বিষয়ে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের অনুভূতিতে আঘাত সৃষ্টি করবে। চলচ্চিত্রটির প্রযোজক, পরিচালক এবং চিত্রনাট্যকার সস্তা প্রচারণার উদ্দেশ্যে ধর্মীয় উস্কানিমূলক পথ বেছে নিয়েছেন।

 

নোটিশে চলচ্চিত্রটির সেন্সর ও প্রদর্শন বাজার থেকে প্রত্যাহার এবং সংশ্লিষ্টদের মুসলিম সমাজের কাছে ক্ষমা চাইতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। না হলে ৭২ ঘণ্টা পর প্রয়োজনীয় আইনি পদক্ষেপ গ্রহণে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার বিষয়টি নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় নির্মিত সার্ফিং নিয়ে দেশের প্রথম চলচ্চিত্র ‘ন ডরাই’। ছবিটির মূল চরিত্রের নাম আয়শা। যিনি শত প্রতিকূলতা অতিক্রম করে সার্ফিং করেন। এতে আয়শা চরিত্রে অভিনয় করেন সুনেরাহ্ বিনতে কামাল। মূলত এই নামটি নিয়েই আপত্তি তুলেছেন আইনজীবী মো. হুজ্জাতুল  ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *