পশ্চিমবঙ্গেই সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী!

রূপসী বাংলা কলকাতা ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে অবৈধ বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী নিয়ে রাজ্যটির প্রধান বিরোধী দল বিজেপির অভিযোগ দীর্ঘদিনের। গত কয়েক বছরে রাজ্যের নির্বাচনী প্রচারে বিজেপির অন্যতম প্রধান হাতিয়ার হয়ে উঠেছে এই অনুপ্রবেশ ইস্যুটি। আর এই কারণেই সেখানে নাগরিক পঞ্জি তালিকা (এনআরসি) চালু করতে চায় বিজেপি। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন তিনি বেঁচে থাকতে কোনদিনই এরাজ্যে তা চালু হবে না।

২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনেও এই অনুপ্রবেশ ইস্যুকে সামনে রেখেই তৈরি হচ্ছে বিজেপি। ইতিমধ্যেই বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহও ঘোষনা দিয়েছেন যে, রাজ্যে আগামী বিধানসভার নির্বাচনী প্রচারে তার দল এনআরসি ইস্যুকেই প্রধান হাতিয়ার করতে চায়। তবে বিরোধীদের অনুপ্রবেশের অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত রাজ্য সরকার মানতে রাজি না হলেও, বিজেপির সেই অভিযোগকেই কার্যত স্বীকৃতি দিলো ভারতের ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড বুরো বা এনসিআরবি।

সম্প্রতি এনসিআরবি’র তরফে প্রকাশিত একটি তথ্যে জানা গেছে ২০১৭ সালে গোটা দেশে যত অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটেছে তার প্রায় অর্ধেক হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। ২০১৪ সাল থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে ৬০ শতাংশের বেশি অনুপ্রবেশর ঘটনা ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গে। চাঞ্চল্যকর তথ্য হল, ভারতের কারাগারগুলিতে বন্দি বিদেশিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক নাগরিক প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশের। এর মধ্যে দোষী সাব্যস্ত বন্দি ৬৩ শতাংশ এবং বিচারাধীন বন্দির শতকরা ভাগ ৩৮.৬ শতাংশ। আবার এই বন্দিদের অধিকাংশই আটক রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের কারাগারে। রাজ্যের বিভিন্ন কারাগারে বিদেশি বন্দির শতকরা হার ৬১.৯ শতাংশ। এই রাজ্যেই রয়েছে সবচেয়ে বিচারাধীন বন্দি, শতকরা হার ২৫.৬ শতাংশ।

এনসিআরবি’এর তথ্য অনুযায়ী বিদেশি আইন ১৯৪৬ বিদেশি নিবন্ধন আইন ১৯৩৯, নাগরিকত্ব আইন ১৯৫৫, অভিবাসন আইন ১৯৮৩ এবং পাসপোর্ট আইন ১৯৬৭। এই পাঁচ আইনের আওতায় ২০১৭ সালে ভারতে ২০৮৩ টি অভিযোগ দায়ের হয়, এর মধ্যে ১১৮১টি (৫৬.৬৯ শতাংশ) হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গে। ২০১৬ সালে গোটা দেশে দায়ের করা ২৮১৩টি অভিযোগের মধ্যে এ রাজ্যেই ১৬৮০ টি অভিযোগ দায়ের করা হয়।

২০১৫ সালে গোটা দেশের মধ্যে দায়েরকৃত ২৮৬৩ টি অভিযোগের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে হয় ১৮৭২টি। এই পাঁচটি আইনে ২০১৪ সালে গোটা দেশে ২৭০১ টি অভিযোগ দায়ের হয়, এর মধ্যে কেবলমাত্র পশ্চিমবঙ্গেই ১৬৬৯টি অভিযোগ।

অনুপ্রবেশ সম্পর্কিত মামলায় ২০১৪-২০১৭ সাল পর্যন্ত সবমিলিয়ে গোটা ভারতে ১০৪৬০ টি অভিযোগ দায়ের হয়, যার অর্ধেকের বেশি মামলা (৬৪০২ টি) রুজু হয় এই পশ্চিমবঙ্গে।

এনসিআরবি’র প্রকাশিত তথ্যে আরো জানা যায়, বিদেশি বন্দিদের মধ্যে সবচেয়ে পাকিস্তানি নাগরিক আটক রয়েছেন গুজরাটে। রাজ্যটির বিভিন্ন কারাগারে আটক পাকিস্তানি বন্দিদের সংখ্যা ৫৯ জন। মুসলিম অধ্যুষিত জম্মু-কাশ্মীরে পাকিস্তানি বন্দির সংখ্যা মাত্র ৩৫ জন।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ আগস্ট আসামের বহুল আলোচিত এনআরসি’র চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হয়। নতুন এই তালিকায় ৩ কোটি ১১ লাখ ২১ হাজার ৪ জনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছেন। আর বাদ পড়েছেন ১৯ লাখের বেশি মানুষ। এদের মধ্যে বাঙালি হিন্দুর সংখ্যা ১০ থেকে ১২ লাখ। আর বাঙালি মুসলিম বাদ পড়েছেন দেড় থেকে দু’লক্ষ। এ নিয়ে আতঙ্কিত তালিকার বাইরে থাকা মানুষেরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *