যুক্তরাষ্ট্র

ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের ভাস্কর্যে অগ্নিসংযোগ

স্লোভেনিয়ার সেভনিকায় মার্কিন ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের একটি কাঠের ভাস্কর্য পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

ভাস্কর্যটি নির্মাণে যে শিল্পীকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল, তিনি বলেন, ৪ জুলাই আমেরিকার স্বাধীনতা দিবসে ফার্স্টলেডির নিজ শহরে এই অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

বার্লিনভিত্তিক মার্কিন শিল্পী ব্র্যাড ডাউনি বলেন, ঘটনাটির কথা পুলিশ আমাকে জানিয়েছে। কালো ও বিকৃত হয়ে যাওয়া ভাস্কর্যটি আমি সরিয়ে ফেলেছি।

তিনি বলেন, তারা এমনটি কেন করেছেন, আমি জানতে চাই।

যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এই ভাস্কর্য সংলাপকে উৎসাহিত করবে বলে তিনি আশা করেছিলেন। মেলানিয়া এমন একজন অভিবাসী, যার স্বামী মার্কিন প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরও অভিবাসীদের প্রতি ক্রমাগত বিদ্বেষ ছড়িয়ে যাচ্ছেন।

দেশের ঐতিহাসিক ভাস্কর্য ও স্মৃতিসৌধগুলোতে ভাঙচুর ও ধ্বংসের বিরুদ্ধে সম্প্রতি কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

জর্জ ফ্লয়েড নামে এক কালো যুবক পুলিশের হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রসহ সারা বিশ্বে বর্ণবাদবিরোধী ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। এতে তারা বেশ কয়েকটি বর্ণবাদী ঔপনিবেশিক স্মৃতিচিহ্ন ও ভাস্কর্য ভেঙে ফেলেন।

ব্র্যাড ডাউনি বলেন, আমি পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ দাখিল করেছি। অপরাধীকে খুঁজে পেলে একটি প্রামাণ্যচিত্রের জন্য তার সাক্ষাৎকার নিতে চাই। আগামী সেপ্টেম্বরে স্লোভেনিয়ায় তার প্রদর্শনী সামনে রেখে এই প্রামাণ্যচিত্রটি তিনি প্রস্তুত করছেন।

পুলিশের মুখপাত্র আলেনকা ড্রেনিক বলেন, এ সংক্রান্ত তদন্ত এখনও শেষ হয় নি। কাজেই এখন আমরা বিস্তারিত তথ্য দিতে পারব না।

ভাস্কর্যটির কাজ পুরো শেষ করা হয় নি। এমনকি এটা যে মেলানিয়ার আকৃতির, তাও পরিষ্কার ছিল না। কেবল মার্কিন ফার্স্টলেডির মতো এটির শরীরেও ফ্যাকাশে নীল রঙের একটি র‌্যাপ অ্যারাউন্ড কোট ছিল। প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের শপথের সময় মেলানিয়া ওই কোট পরেছিলেন।❑

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension