বরফে মোড়া শ্রীনগর-কুলু, মাইনাস ১ ডিগ্রির নীচে হিমাঙ্ক সূচক

রূপসী বাংলা কলকাতা ডেস্ক: নিচে দিল্লি কাঁদছে ধোঁয়ার জ্বালায়৷ সেটা যদি মানুষের তৈরি দূষণ হয় তাহলে উল্টো ছবিটাও স্পষ্ট হতে শুরু করেছে৷ প্রথম শীতেই জমে কাঠ হয়ে গেল কাশ্মীরের কিছু অংশ ও হিমাচল প্রদেশ৷ হু হু করে তাপমাত্রার সূচক নামতে শুরু করেছে৷ কোথাও কোথাও শূন্যের নিচে নেমেছে পারদ৷ স্বাভাবিকভাবেই দুই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা রাজ্যবাসী তুষারে ঢেকে থাকা জীবন শুরু করেছেন৷ ঝিলম উপত্যকার শ্রীনগরের রাস্তায় রাস্তায় বরফের স্তর৷

একইভাবে হিমাচলের কাংড়া ও কুলুতেও প্রবল শীতের দাপট শুরু হয়ে গেল৷ তুষারপাত হতে শুরু করেছে এখানেও৷ হিমাচলের বিভিন্ন এলাকা বিচ্ছিন্ন৷ আবার প্রবল তুষারপাতের কারণে কাশ্মীরের বিখ্যাত মুঘল রোড বন্ধ৷ এই সড়কের সর্বত্র বরফের চাদর বিছিয়ে দিয়েছে প্রকৃতি৷ বন্ধ হয়ে গিয়েছে যান চলাচল৷

বিভিন্ন সংবাদ সংস্থার খবর, তুষারপাতের কারণে হিমাচলের বিখ্যাত জালোরি পাসে বন্ধ হয়েছে যান চলাচাল৷ লাহুল, সোলাং উপত্যকার বহু এলাকায় তুষারপাতের কারণে আপাতত কেউই যেতে পারবেন না৷ আগামী কয়েকদিন এমন পরিস্থিতি থাকবে৷ পরিস্থিতি অনুকূল হলে ফের রাস্তা পরিষ্কার করে চলবে যানবাহন৷

পিটিআই জানাচ্ছে, ভারি তুষারপাতের কারণে শ্রীনগর বিমানবন্দর থেকে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন বিমান উড়ানের সূচি বাতিল হয়েছে৷ ঝিলম ও লিডার নদী উপত্যকার বাসিন্দারা ঘরবন্দি৷ যে সমস্ত পর্যটক দুই রাজ্যেই যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন তাদের ট্যুর প্ল্যান বাতিল করা হয়েছে৷ অনেকে তুষারপাত হয়েছে এমন এলাকার কাছাকাছি পৌঁছে সাময়িক আনন্দ উপভোগ করেছেন৷

মৌসম ভবন জানাচ্ছে, শুধু হিমাচল বা কাশ্মীর নয়, উত্তরাখণ্ডের উত্তরাঞ্চলেও কিছু এলাকা বৃষ্টি হওয়ায় সেখানেও তুষারপাত হবে৷ ক্রমাগত নামতে শুরু করেছে তাপমাত্রা৷ বিভিন্ন তীর্থকেন্দ্রের প্রবেশদ্বার ইতিমধ্যেই বন্ধ৷ দেরাদুনেও ঠাণ্ডার আমেজ আসতে শুরু করেছে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *