বাংলাদেশের গর্ব – প্রবাসে এক ছাতার নিচে সফল বাংলাদেশিরা

সাইফুল আজম সিদ্দিকী: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডেট্রয়েট শহরে বসেছে উত্তর আমেরিকার বাংলাদেশি চিকিৎসকদের মিলনমেলা। এতে অংশ নিয়েছেন আমেরিকা ও কানাডায় বসবাসরত বাংলাদেশি চিকিৎসক ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা। এই সম্মেলনের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন অব নর্থ আমেরিকা (বামানা)। এ সম্মেলনে সংগঠনটির পরবর্তী কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন ও অন্যন্য কৃতির জন্য এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। স্থানীয় ও বাংলাদেশি প্রখ্যাত শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল প্রধান আকর্ষণ।

মিশিগান অঙ্গরাজ্যের মটর সিটি ডিট্রয়েট নগরীর জেনারেল মটরস (জিএম) এর সদর দপ্তর রেনেসাঁ ভবনে ৫, ৬ ও ৭ জুলাই এই মিলনমেলায় অংশ নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য, কানাডার বিভিন্ন প্রদেশ, ইউরোপ থেকেও কর্মরত বাংলাদেশী চিকিৎসকগন সম্মেলনে অংশ নিইয়েছেন। ২০১৬ সালে এই মিলনমেলা বসেছিল জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের আটলান্টায়। ২০১৭ সালে বসেছিল ফ্লোরিডার অরল্যান্ডোতে। ২০১৮ সালে হয় যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানা অঙ্গরাজ্যের ঐতিহাসিক নিউ অরলিন্স শহরে।

১৯৮১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন অব নর্থ আমেরিকা। সেই থেকে প্রতিবছর অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে এই মিলনমেলা! আয়োজন বিশাল। প্রায় ৫০০ লোকের এই মিলনমেলা! এই মেলায় থাকছে আড্ডা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পিকনিক, মেডিকেল এডুকেশন এবং নতুন কার্যকরী কমিটির নির্বাচন! সব মিলে হই হই রই রই করে কেটে যায় তিনটা দিন।

বর্তমানে উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে বিএমএর ১৩টি চ্যাপটার রয়েছে। মেম্বার সংখ্যা প্রায় ৮০০! সবচেয়ে বড় চ্যাপটার নিউইয়র্ক। তারপরই আছে ফ্লোরিডা, মিশিগান ও ক্যালিফোর্নিয়া। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে প্রায় সব অঙ্গরাজ্যের চিকিৎসকের মধ্যে তৈরি হয়েছে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা! সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত জিয়া উদ্দিন। এ বছর ডাক্তার নেতৃবৃন্দের মাঝে বামানার নির্বাচনে সভাপতি হন জিয়াউর রহমান, প্রেসিডেন্ট (ইলেক্ট) জামাল উদ্দিন, সেক্রেটারি ফজলুল ইউসুফ, ট্রেজারার বসির আহমেদ, সায়েন্টিফিক সেক্রেটারি ইউসুফ আল মামুন, ইয়ং ফিজিশিয়ান সেক্রেটারি আদিবা গীতি, মেম্বার অ্যাট লারজ ১। মুজিব মজুমদার, ২। ফেরদৌস শিল্পী, ও ৩। আহমেদ মোরশেদ।

উদ্বোধনী রাতে বাংলাদেশি-আমেরিকান ডাক্তার ও তাদের পরিবারের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে মিশিগানের স্থানীয় ডাক্তার পরিবারের সদস্যদের সতরস্ফুরত অংশগ্রহণে প্রানবন্ত হয়ে উঠে। মা চিনু মৃধা – ও মেয়ে আমিতা মৃধার দেশের গানের সাথে দৈত নৃত্য সকলের দৃষ্টি কাড়ে। এছাড়া স্থানীয় কন্ঠ শিল্পী জিন্নাহ খান গান পরিবেশন করেন।

গালা নাইটসের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল বেশ জমজমাট। নৈশভোজের পর গানের মূর্চ্ছনায় সবাইকে মাতিয়ে তোলেন বাংলাদেশের জনপ্রীয় ব্যান্ডদল মাইলস ও জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী বেবি নাজনিন। চিকিৎসা বিজ্ঞানে ও মানবতার অন্যন্য কৃতি স্থাপনের জন্য ডাক্তারদের প্রবাসী এ সংগঠনটি তিনটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রদান করেন। এ বছর বিএমএ রিকগনেশন এ্যাওয়ার্ড ২০১৯ পান ডঃ হালিদা হানুম আক্তার ও ডঃ এ এফ এম জিয়াউল হক। লাইফ টাইম অ্যাাচিভম্যান্ট এ্যাওয়ার্ড পান ডঃ ধিরাজ শাহ্‌, মানবতার জন্য হিউম্যানিটারিয়ান পান এডভোকেট সালমা আলী ও অধ্যাপক এম এ ফয়েজ। সামনের বছরের ৪০তম সম্মেলন টেক্সাস অঙ্গরাজ্যে ডালাস নগরীতে আয়োজনের ঘোষণার মধ্য দিয়ে এই সম্মেলন তথা বাংলাদেশি ডাক্তারদের মিলনমেলার পরিসমাপ্তি ঘটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *