মুক্তমত

বিপ্লবের পর শুরু হয় মহা বিপ্লব

ডি এম রনেল: মনে রাখবেন বিপ্লবীদের কখনও পদের প্রয়োজন হয়’না। বিপ্লবীরা মৃত্যকে আলিঙ্গন করবে কিন্তু কখনও পরাজয় বরণ করবেনা।

যুক্তরাষ্ট আওয়ামীলীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান এর অসাংগঠনিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিল আমাদের প্রতিবাদী কন্ঠ

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সার্থে আমরা অনেক প্রতিকূলতার মধ্যেও সর্ব প্রথম জনসম্মুখে ও মুখবইতে সিদ্দিকুর রহমানের অসাংগঠনিক কর্যকলাপের আত্মসমালোচনা শুরু করি।

তার সাথে-সাথে শুরু হয় আমাদের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র এবং আমাদের দেখানো হয়েছিল অনেক ভয়ভীতি। ভয় পেলে কি জয় করা যায়, মোটেই নয়।

সুতরাং আমার নীতি ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিচ্চুত হইনি, এক পর্যায়ে আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়।

ষড়যন্ত্রকারীরা মামলা দিয়ে ভেবে ছিল আমি আমাদের থামিয়ে দেবে।
ওরা কখনও ভাবতেও পারেনি
আমরা যে ভয় পাওয়ার পাত্র নয়, আমরা যে এক একজন আদর্শবাদী বিপ্লবী, ওরা জানে না জেল জুলুম কে বিপ্লবীরা ভয় পায় না।

সুতরাং একজন প্রকৃত মুজিব সৈনিক কে জেলে দেওয়া যায় কিন্তু থামিয়ে দেওয়া যায় না।
অনেক উত্তাল সাগরের ঢেউয়ের গর্জনের সাথে আমরা খেলেছি পথ হারাইনি।

আমরা সাত বছর হেঁটেছি, ঝুঁকি নিয়েছি, জিততে পারিনি কথা যেমন সত্য ছিল তেমনি হেরেও যাইনি,
পথ দেখিয়ে দিয়ে ছিলাম হাজারও ত্যাগী নেতাকর্মী কে।

সেই পথের প্রান্তে খাঁজ কাটা প্রমাণিক নায়কের ভুমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিল ২৩এ সেপ্টেম্বর ২০১৮ নিউইয়র্কের হিল্টন হোটেলের বলরুমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জননেত্রী শেখ হাসিনার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে। ৯৭% শতাংশ জনতার মূখে বিপ্লবী কণ্ঠনালী দিয়ে উচ্ছারিত হয়ে ছিল

NO MORE SIDDQUE-NO MORE SODDQUE

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপস্তিতে, যাহা বিপ্লবের প্রতি বিপ্লব।

NO MORE SIDDQUE-NO MORE SODDQUE

স্লগানের মাধ্যমে বিএনপির দালাল হাইব্রিড সিদ্দিকুর রহমান ভান ধরে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ কে খান-খান করে দেওয়ার দুরদৃষ্ট গভীর ষড়ষন্ত্রের পরিকল্পনা বিপর্যস্ত করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতাকর্মী।

দেরিতে হলেও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী সহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সম্মুখে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি সিদ্দিকুর রহমান স্বাধীনতা বিরুধী জামাতের চর, বিএনপির দালাল, খন্দকার মোস্তাকের প্রেতাত্মা, যা আমার জন্য ছিল এক ঐতিহাসিক দিন।

পরাজয় হয়েছে বিশ্বাসঘাতক মিরজাফর সিদ্দিকুর রহমানের, জয় হয়েছে সততার, জয় হয়েছে ত্যাগী নেতাকর্মীদের, জয় হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের।
জয়বাংলা !
জয়বঙ্গবন্ধু !

Show More

Related Articles

2 Comments

  1. এই লেখাটা আমার ছিল রুনেল নকল করেছে এবং দুই একটা শব্দ পরিবর্তন করেছে মাত্র যাহা মোটেই কাম্য নয় ।

    1. ওয়ালী হোসেন, আপনার অভিযোগটি অত্যন্ত গুরুতর। কিন্তু আমাদেরকে আপনার অভিযোগ গ্রহণ করতে হলে আপনাকে তথ্য প্রমাণ সরবরাহ করতে হবে। তথ্য প্রমাণ সন্তোষজনক হলে আমরা লেখাটি সরিয়ে নেব।
      একই সঙ্গে আমরা ডিএম রনেলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। অন্যের লেখা নিজের নামে চালিয়ে দেওয়া বুদ্ধিবৃত্তিক চৌর্যবৃত্তি। আমরা এই ধারাকে উৎসাহিত করতে পারি না। লেখা চুরির এই অভিযোগ আপনাকে খন্ডন করতে হবে।
      আমরা আপনাদের দুজনকেই rupoahibangla.rns@gmail.com এই ইমেইলে বক্তব্য পাঠাতে অনুরোধ করছি।
      -রূপসী বাংলা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension