মামলার ভয়ে আধা মরা হয়ে গেছি: আব্বাস

রূপসী বাংলা নিউজ ডেস্ক: ক্যাসিনোর অভিযান প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, ক্যাসিনোর নাম দিয়ে কিছু মানুষকে গ্রেপ্তার করা হলো। ভালো কথা। অবৈধভাবে যারা টাকা কামাই করেছেন তাদেরকে গ্রেপ্তার করছে। এটাকে আমি স্বাগত জানাই। কিন্তু এরচেয়ে যারা বড় বড় রাঘব বোয়াল রয়ে গেছে, এদের ক্ষেত্রে কি করছেন? নামটা বলতে চাই না। কারণ নাম বললেই একটা করে মামলা দেবেন। আমি মামলা- হামলায় ভয়ে এমনি আধা মরা হয়ে গেছি।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাবেক নেতৃবৃন্দের উদ্যোগে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তি ও বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার বিচারের দাবি’ শীর্ষক এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মির্জা আব্বাস বলেন, ক্যাসিনোর নাম দিয়ে কিছু মানুষকে গ্রেপ্তার করা হলো। ভালো কথা। অবৈধভাবে যারা টাকা কামাই করছে তাদেরকে গ্রেপ্তার করছে। এটাকে আমি স্বাগত জানাই। কিন্তু এরচেয়ে যারা বড় বড় রাঘব বোয়াল রয়ে গেছে, এদের ক্ষেত্রে কি করছেন? নামটা বলতে চাই না। কারণ নাম বললেই একটা করে মামলা দেবেন। আমি মামলা- হামলায় ভয়ে এমনি আধা মরা হয়ে গেছি। কিছু হলেই মামলা দেবেন। কিন্তু এই হুমকি-ধামকি চলবে না। দেশের মানুষ মানবে না। এদেশের মানুষ এটা ভালো চোখে দেখছে না এবং ভালোভাবে নিচ্ছে না।

যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান ওমর ফারুক ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওসারকে বহিষ্কারের প্রসঙ্গে পত্রিকার সংবাদ তুলে ধরে তিনি বলেন, ভালো কথা। কিন্তু মানুষ এসব টোকাইয়ের বহিষ্কার শুনতে চায় না। মানুষ সরকারের অপসারন চায়। টোকাইয়ের অপসারন মানুষ চায় না। কারণ এই সরকারে অপসারন ছাড়া এদেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে না।

গুম ও খুনের বিষয়ে আওয়ামী লীগের নেতাদের উদ্দেশ্য করে আব্বাস বলেন, আওয়ামী লীগের নেতারা ভাবচ্ছেন, এটা তো বিএনপির ওপর নির্যাতন হচ্ছে। কিন্তু যাদের নির্দেশে আপনারা এসব করছেন। একদিন যে আপনাদের করবে না, সেটার কি গ্যারান্টি আছে? সেই সময় বেশী দেরী নাই।

আবরার ফাহাদ হত্যার প্রসঙ্গে মির্জা আব্বাস বলেন, দেশকে মেধা শূন্য করা হচ্ছে। এটা আগেই বেগম জিয়া বলেছিলেন, তিনি স্লোগান দিয়েছিলেন- দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও। আজকে বেগম জিয়া জেলে, কিন্তু তার প্রতিটি কথা প্রমাণিত হচ্ছে। এদেশে মানুষ মেরে সাফ করে দেওয়া হচ্ছে। মেধা শেষ করে দেওয়া হচ্ছে।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু’র সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া প্রতিবাদ সভায় বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমান, খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, আসাদুজ্জামান রিপন, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, এবিএম মোশাররফ হোসেন, শিরিন সুলতানা, নাজিম উদ্দিন আলম প্রমুখ বক্তব্যে রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *