অর্থনীতিকরোনাযুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট কংগ্রেসে ৩ ট্রিলিয়ন ডলারের করোনা রিলিফ বিল পাশ

যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট কংগ্রেসের নিন্মকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টিটিভে ৩ ট্রিলিয়ন ডলারের করোনা রিলিফ বিল পাশ হয়েছে। কিন্তু বিরোধীদল ডেমোক্রেট সংখ্যাগরিষ্ঠ হাউসে শুক্রবার বিলটি পাস হলেও ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান পার্টির অধীনে থাকা উচ্চকক্ষ সিনেটে বিলটি পাস হওয়া এখনও অনিশ্চিত।

করোনায় ভেঙে পড়া অর্থনীতি সচলের জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প লকডাউন বাতিলের পক্ষে থাকলেও বিরোধীদলের পাস করা বিলের পক্ষে নেই তার রিপাবলিকান পার্টি।

সিএনএন এক খবরে জানিয়েছে, ট্রাম্পের দল এ বিলকে ‘আগামী নির্বাচনে ডেমোক্রেটদের ভোট বাগানোর গলাকাটা বিল’ বলে আখ্যা দিয়েছে। 

করোনায় সৃষ্ট পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিরোধী দল ডেমোক্র্যাটের প্রস্তাবিত তিন ট্রিলিয়ন ডলারের সহায়তা বিলটি শুক্রবার হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভে ২০৮-১৯৯ ভোটে পাস হয়েছে। এর মধ্যে একজন রিপাবলিকান বিলের পক্ষে রায় দিয়েছেন, বিপরীতে ১৪ ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধি বিলটির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন।

করোনা রিলিফ প্যাকেজ খ্যাত এই বিলের আওতায় একজন মানুষকে কমপক্ষে ১২০০ ডলার করে দেওয়া হবে। এছাড়া বেকার ভাতাসহ এতে আরও রয়েছে স্থানীয় সরকারের জন্য প্রায় ১ ট্রিলিয়ন ডলারের সহায়তা।

করোনাভাইরাস পরীক্ষা এবং সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের শনাক্তকরণ পদ্ধতি আরও সম্প্রসারিত করা। ভাড়াটিয়াদের বাড়িভাড়া প্রদানে সহায়তা, বাড়ির মালিকদের ঋণ ও ইউটিলিটি বিল (বিদ্যুৎ, গ্যাস অন্যান্য) প্রদানে সহায়তা।

পুষ্টি সহায়তার জন্য ১০ বিলিয়ন ডলার সহায়তা দেয়া। ফেডারেল অফিসের নির্বাচনের জন্য জরুরি পরিকল্পনা এবং প্রস্তুতির জন্য রাজ্যগুলোকে ৩.৬ বিলিয়ন ডলার অনুদান দেয়া।

বিলের পক্ষে হাউসের স্পিকার এবং ডেমোক্র্যাট দলের নেতা ন্যান্সি পেলোসি বলেন, খ্যাতনামা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলো ঋণখেলাপি হয়েছে।

মার্চ থেকে গত সপ্তাহ পর্যন্ত ৩ কোটি ৬০ লাখ আমেরিকান বেকার ভাতার জন্যে আবেদন করেছেন। এসব থেকেই অনুমিত হচ্ছে কোথায় অবস্থান করছি আমরা। এমন অবস্থার অবসান ঘটাতে করোনা রিলিফসহ বিভিন্ন সেক্টরে প্রণোদনার বিকল্প নেই।

পেলোসি আরও বলেন, আমি আমার সদস্যদের নিয়ে খুব গর্বিত। কেননা তারা আমেরিকার জনগণের স্বাস্থ্য, জীবনযাত্রার জন্য এবং আমাদের গণতন্ত্রের জন্য স্মরণীয় কিছু করেছে।

তবে নভেম্বরের নির্বাচনে নিজেদের ভোট ব্যাংক সুসংহত রাখার অভিপ্রায়ে ডেমক্র্যাটরা এমন বিল পাশ করলো বলে অভিযোগ রিপাবলিকানদের। অনেক রিপাবলিকান সিনেটর বলছেন, এ বিল ডেমোক্রেটদের আগামী নির্বাচনে ভোটের বাজারে গলাকাটার উদার ইচ্ছার প্যাকেজ।

হাউসে রিপাবলিকান নেতা টম কোল বলেন, এটা বলতে দ্বিধা নেই যে এই বিল ডেমোক্রেটদের করোনা সংকটে সাড়া দেওয়ার নামে ভোট বাগানোর এজেন্ডা। তিনি জোর দিয়ে বলেন, ‘এমন বিল সিনেট পাস করবে না, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তাতে সই করবেন না। ’

এতে করেই রিপাবলিকান শাসিত সিনেটে বিলটি পাশের সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ বলে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন। যদিও সিনেটে রিপাবলিকানদের সঙ্গে এই বিল নিয়ে দেন-দরবার চালানো হবে বলে জানান হাউস স্পিকার পেলোসি।

অবশ্য, করোনা রিলিফ প্যাকেজ হিসেবে গত মার্চে ২.২ ট্রিলিয়ন ডলারের বিল পাশে রিপাবলিকানরাও ভোট দিয়েছিলেন, ট্রাম্পও তা অনুমোদন করেছিলেন।◉

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension