আন্তর্জাতিকএশিয়া

লেবাননে যে কারণে ঘটল ভয়াবহ সেই বিস্ফোরণ

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে মঙ্গলবার আর সব দিনের মতোই চলছিল কাজকর্ম। স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় হঠাৎ বৈরুতের বন্দর এলাকা ভয়াবহ জোড়া বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণ এতোটাই শক্তিশালী ছিল যে, গোটা বৈরুতই কেঁপে ওঠে।

বিস্ফোরণে প্রকাণ্ড শব্দে সেন্ট্রাল বৈরুতের বিশাল বিশাল ভবনের কাচ ভেঙে রাস্তায় পড়ে। প্রথমে বাসিন্দারা বিষয়টিকে ভূমিকম্প ভেবে এদিক ওদিক ছুটোছুটি করে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বৈরুতের বন্দর এলাকার বিস্ফোরণে এমনই ভয়াবহ পরিস্থিতি ঘটে বলে জানিয়েছে আর্ন্তজাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ওই জোড়া বিস্ফোরণে অন্তত ৭8 জন নিহত ও 8 হাজার মানুষ আহত হয়েছেন।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ তথ্য দিয়েছে বিবিসি।

কী করে এতো বড় ধ্বংসযজ্ঞ ঘটল তার কারণ অনুসন্ধানের পর লেবাননের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বিষয়ক প্রধান বলেছেন, এটি একটি দুর্ঘটনা। পরিকল্পিতভাবে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয় নি। বন্দর এলাকায় রাখা অত্যন্ত বিপজ্জনক বিস্ফোরক রাসায়নিক পদার্থের গুদামে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে।

সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গুদামে ২,৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের মতো বিস্ফোরক অনিরাপদভাবে রাখা ছিল। কোনও কারণে সেখানে আগুন লাগে আর তা বিস্ফোরিত হয়।

এর আগে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোতে বলা হচ্ছিল, আতশবাজির এক গুদাম থেকে এই বিস্ফোরণ হয়ে থাকতে পারে।

লেবাননের রাষ্ট্র-পরিচালিত ন্যাশনাল নিউজ এজেন্সি (এনএনএ) জানিয়েছে, বন্দর এলাকায় একটি বিস্ফোরকের ডিপোতে আগুন লাগার পর ওই বিস্ফোরণ ঘটে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, যে স্থানটিতে বিস্ফোরণ ঘটেছে, সেখানে বন্দরের গুদাম রয়েছে। রাসায়নিকের মজুদ থাকা বন্দরের গুদামে প্রথম আগুন লাগার কথা জানা গেছে।

এদিকে ঘটনার পর পর টুইটারে বিস্ফোরণের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সেই বিস্ফোরকের কারণেই এ ধ্বংসযজ্ঞ হয়েছে বলে বোঝা গেছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, সেন্ট্রাল বৈরুতের আকাশে ধোঁয়ার লাল কুণ্ডুলী। এর পরপরই বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে সেন্ট্রাল বৈরুতের বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। মানুষজন চিৎকার, ছুটোছুটি করেছে। বহু ঘরবাড়ি ও গাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে বাসিন্দাদের তোলা ভিডিও এবং ছবিতে শহর জুড়ে ভবনগুলোর দরজা ও জানালার গ্লাস ভেঙ্গে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা গেছে।

বিবিসিকে একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, বিস্ফোরণের আওয়াজ ছিল তীব্র ও কান ফাটানো।

অনিরাপদভাবে কোনো গুদামে ২,৭৫০ টন বিপজ্জনক বিস্ফোরক মজুত রাখার বিষয়টি একেবারেই অগ্রহণযোগ্য বলে জানিয়েছেন লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন ।

ভয়াবহ ধ্বংসযজ্ঞ থেকে প্রাণ বাঁচাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাহায্য চেয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব বলেছেন, এটি একটি মহাবিপর্যয়। দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান ও বিবিসি জানাচ্ছে, বিস্ফোরণে আহতদের ভিড় উপচে পড়ছে বৈরুতের হাসপাতালে। একসঙ্গে এতো আহত মানুষের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীরা। জায়গা সংকুলান না হওয়ায় অনেক পোড়া রোগী ও রক্তাক্তদের নিতে পারছে না হাসপাতালগুলো।

সেজন্য লেবাননের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদেরকে তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে এসব আহতদের সেবা করার জন্য আহ্বান জানিয়েছে। অনেক হাসপাতাল স্থানের সংকুলান না হওয়ায় আর কোনও রোগী নিতে পারছে না।

ঘটনার ভয়াবহতার বর্ণনা করতে গিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে রেডক্রসের লেবানিজ শাখার প্রধান জর্জ বলেন, ‘আমরা ভয়াবহ এই বিপর্যয় প্রত্যক্ষ করছি। বিস্ফোরণস্থলের পাশে কিংবা সেখান থেকে অনেক দূরের রাস্তাগুলোতে যত্রতত্র আহত ও নিহত মানুষ পড়ে আছে।’

বুধবার দেশটিতে জাতীয় শোক দিবস ঘোষণা করেছে লেবানন সরকার।❑

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension