সৌরভকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি পদের শুভেচ্ছা মমতার

রূপসী বাংলা স্পোর্টস ডেস্ক: বিসিসিআইয়ের মসনদে বসছেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতিপদ পাওয়ার শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন অনেকেই। সেই তালিকায় বাদ যাননি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। সোমবার দুপুরে উষ্ণ অভ্যথনা জানিয়েছেন তিনিও।

সংবাদসংস্থার খবর অনুযায়ী, কর্ণাটক ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রাক্তন সচিব তথা দেশের প্রাক্তন টেস্ট ক্রিকেটার ব্রিজেশ প্যাটেল দিনভর এই দৌড়ে এগিয়ে থাকলেও শেষমুহূর্তে বাজিমাত করে গেলেন বাংলার ‘মহারাজ’। নাটকের যবনিকা শেষে সর্বসম্মতিক্রমে বিসিসিআই’য়ের নয়া প্রেসিডেন্ট পদে আসতে চলেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ব্যক্তিগত ট্যুইটার হ্যান্ডেলে লিখেছেন, “বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতাতেই সর্বসম্মতিক্রমে বোর্ডের সভাপতি পদ পাওয়ার জন্য সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে আন্তরিক অভিনন্দন। আপনার সভাপতিত্বে সব উন্নতির শিখরে পৌঁছবে। আপনি ভারতের এবং বাংলার মুখ উজ্জ্বল করেছেন। আমরা ক্রিকেট আস্যোসিয়েশন অব বেঙ্গলের সভাপতি হিসেবে পেয়ে গর্বিত। এখন এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা হতে চলেছে যার দিকে আমরা স্কলেই তাকিয়ে আছি।”

সোমবার অর্থাৎ অক্টোবরের ১৪ তারিখ বিভিন্ন পদে মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষদিন। কোন নির্বাচন প্রক্রিয়া হবে না কারণ সৌরভ বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় এই পদের জন্য জিতে গিয়েছেন। বর্তমানে ৪৭ বছরের এই ব্যাক্তি সিএবির সভাপতি পদে রয়েছেন। যদিও প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হলেও ২০২০, সেপ্টেম্বরে সেই পদ থেকে অব্যাহতি দিতে হবে সিএবি প্রেসিডেন্টকে। কারণ শীর্ষ আদালতের নিয়মানুসারে টানা ছ’বছর বোর্ডের কোনওরকম পদে দায়িত্ব সামলানোর পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ‘কুলিং পিরিয়ডে’ যাওয়া আবশ্যক।

চারশোরও বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা দেশের অন্যতম সফল অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদ অলংকৃত করার বিষয়টি সাদরে গ্রহণ করছেন সকলে। উত্তর-পূর্ব জোনের এক সিনিয়র বিসিসিআই আধিকারিকের কথায়, ‘শ্রী নিবাসন তাঁর হয়ে ব্যাট ধরার কারণে ব্রিজেশ দৌড়ে ছিলেন ঠিকই। কিন্তু তাঁকে সম্মতিক্রমে মেনে নিতে পারেনি সকলে। নয়া প্রেসিডেন্ট হিসেবে সৌরভকে পাওয়ায় আমরা ভীষণ খুশি।’ সবমলিয়ে গত কয়েকদিন ধরে রাজধানীতে বিস্তর লবির পর প্রিন্স অফ ক্যালকাটা’র বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদে বসা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

আগামী ২৩ অক্টোবর বার্ষিক সাধারণ সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে নয়া প্রেসিডেন্টে নাম। ২০১৫ সালে জগমোহন ডালমিয়ার মৃত্যুর পর সিএবির দায়িত্ব নিয়েছিলেন। তবে সৌরভ নিয়মকানুন নিয়ে সতর্ক হওয়ায় তা নিয়ে অসুবিধা হবে না বলেই মনে করছেন তিনি।

ক্রিকেটমহলে জল্পনা ২০২১ পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই বোর্ডের নয়া প্রেসিডেন্ট পদে বসানো হচ্ছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে। অর্থাৎ, ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গ থেকে আশাতীত সাফল্যের বোর্ডের প্রেসিডেন্ট পদে সৌরভকে বসানোর পিছনে বিজেপির নানা গেমপ্ল্যানই কাজ করছে বলে মত ভিন্নমহলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *