হঠাৎ বাংলাদেশের ছন্দপতন

রূপসী বাংলা স্পোর্টস ডেস্ক: ওপেনিংয়ে নেমে দুর্দান্ত খেলছিলেন নাঈম শেখ। ভারতীয় বোলারদের হাত খুলে মারছিলেন। তার ব্যাটিংয়ে বোঝার উপায় নেই যে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি খেলতে নেমেছেন। লিটন দাসের সঙ্গে জুটিতে গড়েছেন ৬০ রান। সৌম্যের সঙ্গে করেছেন ২৩ রানের জুটি। দলীয় ৮৩ রানে সুন্দরের বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে শ্রেয়াসের তালুবন্দী হয়ে ফিরেন। সাজঘরে ফেরার আগে ৩১ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৩৬ রান তুলেছেন নাঈম।

চাহালের একই ওভারে আউট হয়েছেন মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকার। প্রথম বলে সুইপ করতে গিয়ে ডিপ মিড উইকেটে সহজ ক্যাচ দেন ৪ রান করা মুশফিক। শেষ বলে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে স্টাম্পড হন সৌম্য। ২০ বলে সৌম্য করেন ৩০।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৩ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১০৩ রান। উইকেটে দুই নতুন ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ ও আফিফ হোসেন।

এর আগে ষষ্ঠ ওভারে পান্তের ভুলে বেঁচে যান লিটন দাস। ওয়াশিংটনের বদলে বোলিংয়ে আসেন চাহাল। তার বলে স্টাম্পিংয়ের সুযোগ ছিল পান্তের। কিন্তু স্টাম্পের আগে বল গ্লাভসবন্দী করে স্টাম্প ভাঙাতে বেঁচে যান লিটন। নট আউটের সিদ্ধান্ত দেন আম্পায়ার, সঙ্গে দেন নো বল। সপ্তম ওভারেও বিদায় নিতে হত লিটনের। বল উড়িয়ে মেরেছিলেন কিন্তু ৩ জন ফিল্ডার মিলেও ক্যাচ নিতে পারেনি ভারতীয়রা। তবে অষ্টম ওভারে সেই পান্তের থ্রোতেই রান আউট হয়ে ফিরে গেছেন লিটন। বিদায় নেন ২৯ রানে।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দারুণ জয়ের পর সিরিজ জয়ের লক্ষ্য নিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে নামছে বাংলাদেশ। ভারতের লক্ষ্য ম্যাচ জিতে সিরিজ জিইয়ে রাখা। রাজকোটে টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। দুই দলই নামছে অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে।

সাইক্লোন মাহার প্রভাবে বুধবার সন্ধ্যায় প্রবল বৃষ্টি হয়েছিল রাজকোটে। পূর্বাভাসে বৃষ্টির শঙ্কা ছিল পরের দিনও। ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচ নিয়ে তাই ছিল শঙ্কা। তবে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই শহরে আকাশ ছিল ঝকঝকে। পরে দিনজুড়ে রোদ-মেঘের খেলা চললেও আর বৃষ্টি হয়নি। বাংলাদেশের ম্যাচ নিয়েও নেই কোন সংশয়।

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। আজকের ম্যাচে জিততে পারলেই ইতিহাস গড়বে টাইগাররা। প্রথমবারের মত ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতবে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহরা।

ভারত এখন পর্যন্ত নিজেদের মাঠে মাত্র চারটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ হেরেছে। ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলগুলো ভারতকে তাদের মাটিতে হারিয়েছে।

বাংলাদেশ একাদশ:

লিটন দাস, সৌম্য সরকার, নাইম শেখ, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আফিফ হোসেন ধ্রুব, শফিউল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন এবং আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।

ভারত একাদশ:

রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আইয়ার, রিশব পন্ত, ক্রুনাল পান্ডিয়া, শিভম দুবে, ওয়াশিংটন সুন্দর, যুজবেন্দ্রা চাহাল, দিপক চাহার এবং খলিল আহমেদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *