৩ হাজার ৬শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে আড়াই বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে সৌদি আরব

রূপসী বাংলা নিউজ ডেস্ক: এলএনজি (লিকুইফাইড ন্যাচারাল গ্যাস)-ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানির পর এবার বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে সৌদি আরব।দুই থেকে আড়াই বিলিয়ন ডলারের এই বিনিয়োগে দেশে তিন হাজার ৬০০ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হবে।তবে কেন্দ্র নির্মাণের স্থান ঠিক হবে প্রকল্পের সম্ভাব্যতা জরিপ শেষ হওয়ার পর।

রাজধানীর হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (বিপিডিবি) সঙ্গে সৌদি আরবের কোম্পানি আকুয়া পাওয়ারের এ সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে।বিপিডিবির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খালেদ মাহমুদ এবং আকুয়া পাওয়ারের চেয়ারম্যান মোহম্মদ আবু নাইয়ান স্মারকে সই করেন।

ইতিপূর্বে যুক্তরাষ্ট্রের জিই এর সঙ্গে বিপিডিবি এবং জামানির সিমেন্সের সঙ্গে নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানির একই ক্ষমতার দুইটি বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের সমঝোতা স্মারক সই করেছিল। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মহেশখালী অথবা পায়রায় এই বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি বিনিয়োগ-বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, ‘তিন হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে দুই থেকে আড়াই বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে আকুয়া পাওয়ার। এই চুক্তির মাধ্যমে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হলো।আমরা যখন গত নভেম্বরে সৌদি আরব সফর করি, তখন সৌদি বাদশা বলেছিলেন বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য পিআইএফ (পাবলিক ইনভেস্ট ফান্ড) টিম পাঠাবেন।এক বছরের কম সময়ে তিনি তার কথা বাস্তবায়ন করেছেন।

তিনি আরো বলেন, এনার্জি হচ্ছে অর্থনীতির চালিকা শক্তি।বাংলাদেশ অসাধারণ সাফল্য এসেছে এই খাতে।এ সমঝোতা স্মারকের পর খুব দ্রুত চূড়ান্ত চুক্তি ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের কাজ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।তবে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হতে চার থেকে ৫ বছর সময় লাগবে বলেও তিনি জানান।

এসময় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাতে বিনিয়োগের ঝুড়ি এখন ভরা। তারপরও উন্নত দেশে পরিণত হতে হলে আমাদের আরও বিনিয়োগ প্রয়োজন। সৌদি আরবের এই বিনিয়োগ দুই দেশের বন্ধুত্ব আরও দৃঢ় করবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।এর আগে বাংলাদেশে সৌদির আল ফানাহ নামে একটি কোম্পানি ১০০ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ স্থাপনে চুক্তি করেছে।তবে এটিই দেশটির বড় বিনিয়োগ।

সৌদি আকুয়া পাওয়ারের চেয়ারম্যান মোহম্মদ আবু নাইয়ান বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে আমাদের রাজনৈতিক সম্পর্ক অনেক ভালো।এই বিনিয়োগের মাধ্যমে সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে। তিনি বলেন, বিশ্বের ১২টি দেশে আমাদের কোম্পানি কাজ করছে।আমাদের সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ সৌর বিদ্যুতে।এছাড়া জলবিদ্যুৎ, তাপবিদ্যুৎ নিয়েও আমরা কাজ করছি। বাংলাদেশে এটি সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ।এ বিনিয়োগের মাধ্যমে যে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হবে সেটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তির বিদ্যুৎকেন্দ্র।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শহিদুজ্জামান সরকার প্রমূখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *