বিশ্বকাপে দারুণ কিছু করবেন রোনালদো: কাসিয়াস

টানা পঞ্চম বিশ্বকাপে খেলার অপেক্ষায় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ভিন্ন পাঁচ আসরে গোল করার হাতছানি তার সামনে। তবে সবকিছু অনেকটা আড়াল হয়ে গেছে ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে পর্তুগিজ মহাতারকার চলমান টানাপোড়নের কারণে। এমনিতে বয়সের ছাপও পড়েছে তার পারফরম্যান্সে।

তবে সাবেক ক্লাব সতীর্থ ইকের কাসিয়াসের বিশ্বাস, এখনও সর্বোচ্চ স্তরে খেলার সামর্থ্য আছে রোনালদোর। পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলারকে বিশ্বকাপের গোল্ডেন বুট জয়ের লড়াইয়েও রাখছেন রিয়াল মাদ্রিদ ও স্পেনের কিংবদন্তি গোলরক্ষক কাসিয়াস।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ইউনাইটেড বোর্ড, ক্লাবের মালিকপক্ষ ও কোচ এরিক টেন হাগের কড়া সমালোচনা করেন রোনালদো। তার অভিযোগ, ইউনাইটেডে তিনি প্রতারিত হয়েছেন। পরে ইউনাইটেড তার বিরুদ্ধে ‘ব্যবস্থা নেওয়ার’ প্রক্রিয়া শুরুর কথা জানায়। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের খবর, রোনালদোর সঙ্গে চুক্তি বাতিল করতে যাচ্ছে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের ক্লাবটি।
সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় দল ও ক্লাবে ৩৭ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডের পারফরম্যান্স নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। পর্তুগালের জার্সিতে সবশেষ পাঁচ ম্যাচে গোল করেছেন দুইটি, আর সবশেষ তিন ম্যাচে পাননি জালের দেখা। ইউনাইটেডের হয়ে এই মৌসুমে এখন পর্যন্ত ১৬ ম্যাচে গোল করেছেন কেবল তিনটি।

২০০৯-১০ থেকে ২০১৪-১৫ মৌসুম পর্যন্ত রিয়ালে রোনালদোর সঙ্গে খেলা কাসিয়াস রবিবার (২০ নভেম্বর) স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কায় প্রকাশিত সাক্ষাৎকারে আশা প্রকাশ করেন, বিশ্বকাপে দারুণ কিছু করবেন পর্তুগালের সবচেয়ে বড় তারকা।

কাসিয়াস বলেন, এটা বলা খুব কঠিন (কে গোল্ডেন বুট জিতবে)। পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতার বিচারে আমি বলতাম, (করিম) বেনজেমা, কিন্তু সে চোট পেয়ে ছিটকে গেছে। দেখা যাক কী হয়। তারপর নেইমার আছে, সেও জিততে পারে অথবা মেসি বা রোনালদো।

তিনি আরও বলেন, মনে হচ্ছে, ক্রিস্তিয়ানো বিশ্বকাপে এসেছে অতিথি হিসেবে এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে তার দ্বন্দ্বের কারণে লোকজন তাকে গোনায় ধরছে না। লোকজন যখন তার সম্পর্কে কথা বলে, তারা ভুলে যায় যে সে কী করেছে। আমি সবসময় তাকে আমার দলে রাখব। ক্রিস্টিয়ানো এখনও আছে এবং সর্বোচ্চ স্তরে খেলতে সক্ষম।

বিশ্বকাপের আগে দলের শেষ প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে খেলেননি রোনালদো। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটি ৪-০ গোলে জেতে পর্তুগাল। দলের পক্ষ থেকে তখন জানানো হয়েছিল, পেটের সমস্যায় খেলেননি রোনালদো। এরপর সতীর্থদের সঙ্গে অনুশীলনে ফেরেন তিনি। আগামী বৃহস্পতিবার ঘানার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে তাকে রেখেই কোচ ফের্নান্দো সান্তোস দল সাজাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সাবেক সতীর্থের দলকে অবশ্য ফাইনালে দেখছেন না কাসিয়াস। স্পেনের ২০১০ বিশ্বকাপ জয়ী তারকা জানিয়ে দিলেন ফাইনাল নিয়ে তার ভাবনা। তিনি বলেম, আশা করব, ফাইনালটা স্পেন-ফ্রান্স বা স্পেন-ব্রাজিল হোক। স্পেন সেমিফাইনালে পৌঁছালে আমি খুশি হব, যদি ফাইনালে ওঠে, তাহলে আরও ভালো। এগিয়ে যাও স্পেন-ফ্রান্স।

Exit mobile version