বিনোদন

মারা গেলেন অভিনেতা ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড

‘দ্য হাঙ্গার গেমস’ ও ‘ডোন্ট লুক নাও’খ্যাত অভিনেতা ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামিতে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর।

ডোনাল্ড সাদারল্যান্ডের ছেলে অভিনেতা কিয়েফের সাদারল্যান্ড বিবিসিকে বলেন, দু:খ ভরাক্রান্ত হৃদয়ে বলছি, আমার বাবা ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড মারা গেছেন। ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি, সিনেমার ইতিহাসে আমার বাবা ছিলেন একজন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। পঞ্চাশ বছরের বেশি সময়ের অভিনয় জীবনে প্রায় ২০০টি সিনেমায় অভিনয় করেন ডোনাল্ড।

ডোনাল্ড সাদারল্যান্ডের স্মৃতিকথা ‘মেড আপ, বাট স্টিল ট্রু’ আগামী নভেম্বরে বাজারে আসার কথা রয়েছে। অভিনেতা হিসেবে তাঁর পথচলার ঘটনাগুলো তুলে ধরা হয়েছে এতে। বই প্রকাশের আগেই পরপারে চলে গেলেন তিনি। তাঁর চার ছেলে ও এক মেয়ে।

১৯৩৫ সালের ১৭ জুলাই কানাডায় জন্মগ্রহণ করেন ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড। রেডিওর নিউজ রিপোর্টার হিসেবে চাকরি শুরু হয়েছিলো তার। ১৯৫৭ সালে কানাডা ছেড়ে লন্ডনে পাড়ি জমান তিনি। লন্ডন অ্যাকাডেমি অব মিউজিক অ্যান্ড ড্রামাটিক আর্টে পড়াশোনা করেন।

লন্ডনে মঞ্চনাটকে অভিনয় করে সপ্তাহে মাত্র ৮ পাউন্ড পেতেন ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড। ১৯৬৪ সালে রয়েল কোর্ট মঞ্চে একটি নাটকে অভিনয় করে সপ্তাহে ১৭ পাউন্ড পেয়েছিলেন তিনি। এরপর ব্রিটিশ সিনেমা ও টেলিভিশন সিরিজে স্বল্প উপস্থিতির কিছু চরিত্রে অভিনয় করে অভিজ্ঞতা জমিয়েছেন এই তারকা।

প্রায় ২০০টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য– দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে নির্মিত ‘দ্য ডার্টি ডজন’ (১৯৬৭), কোরিয়ান যুদ্ধে কর্মরত চিকিৎসকদের নিয়ে নির্মিত কমেডি ‘ম্যাশ’ (১৯৭০), “কেলি’স হিরোস” (১৯৭০), “ডোন্ট লুক নাউ” (১৯৭৩), ‘দ্য ঈগল হ্যাজ ল্যান্ডেড’ (১৯৭৬), “ন্যাশনাল ল্যামপুন’স অ্যানিমেল হাউস” (১৯৭৮), ‘ইনভেশন অব দ্য বডি স্ন্যাচার্স’ (১৯৭৮)। ‘দ্য হাঙ্গার গেমস’ ফ্রাঞ্চাইজের প্রথম চারটি ছবিতে অত্যাচারীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

‘ক্লুট’ (১৯৭১) ছবিতে গোয়েন্দা চরিত্রে দর্শকদের মন কাড়েন ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড। এতে তার সহশিল্পী জেন ফন্ডা অস্কারে সেরা অভিনেত্রী হন। ব্যক্তিজীবনে তারা দুই বছর প্রেমের জড়িয়েছিলেন। দু’জনে ভিয়েতনাম যুদ্ধের বিরোধিতা করে আলোচিত হন।

আশির দশকে ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড অভিনীত ‘অর্ডিনারি পিপল’ চারটি করে অস্কার ও গোল্ডেন গ্লোব জিতেছে। ক্যারিয়ারে কখনো অস্কারের মনোনয়ন জোটেনি তার কপালে। তবে ২০১৭ সালে সম্মানসূচক অস্কার দেওয়া হয় গুণী এই অভিনেতাকে।

ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড ২০০০ সালের পর ছোট পর্দায় নাম লেখান। তার জনপ্রিয় সিরিজের তালিকায় আছে ‘ডার্টি সেক্সি মানি’, ‘কমান্ডার-ইন-চিফ’ প্রভৃতি।

গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ডসে ৯ বার মনোনীত হন ডোনাল্ড সাদারল্যান্ড। এরমধ্যে ১৯৯৫ ও ২০০২ সালে টেলিভিশনের সেরা সহ-অভিনেতা বিভাগে পুরস্কার জেতেন তিনি।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Adblock Detected

Please, Deactivate The Adblock Extension